ফুলগাজী সরকারি কলেজে নেই পাঁচ বিষয়ের শিক্ষক

প্রকাশ : ০১ মার্চ ২০১৭, ০০:০০

ফেনী প্রতিনিধি

ফেনীর ফুলগাজী সরকারী কলেজে বাংলা, ইংরেজিসহ পাঁচ বিষয়ে শিক্ষক নেই। ২৩ শিক্ষকের ১৫টি পদ শূন্য। এতে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। কলেজ সূত্রে জানা গেছে, বাংলা, ইংরেজি, গণিত, পদার্থবিদ্যা, প্রাণিবিদ্যা ৫টি বিষয়ে কোন শিক্ষক নেই। এছাড়া অর্থনীতি বিষয়ে একজন সহকারী অধ্যাপক থাকলেও প্রভাষকের পদটি শূন্য। রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে প্রভাষকের ৩টি পদের মধ্যে দুটি শূন্য, ইসলামের ইতিহাস বিষয়ে দুইজন প্রভাষকের পদে একটি পদ শূন্য। হিসাববিজ্ঞন বিষয়ে দুইজনের মধ্যে প্রভাষকের পদটি শূন্য রয়েছে। ব্যবস্থাপনা বিষয়ে তিন জন প্রভাষক পদের দুটি শূন্য। এছাড়া শরীর চর্চা শিক্ষকের পদও শূন্য রয়েছে।

বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের ৬টি বিষয়ের মধ্যে বাংলা, ইংরেজী, গণিত, পদার্থবিদ্যা ও প্রাণিবিদ্যাসহ পাঁচ বিষয়ে কোন শিক্ষক নেই। শুধু রসায়ন বিভাগের একজন শিক্ষক কর্মরত। তাছাড়া বিজ্ঞান বিভাগের কোন বিষয়ে প্রদর্শক পদ (ডেমোনেষ্টেটর) কলেজ প্রতিষ্ঠার পর থেকে সৃষ্টিই করা হয়নি। অপরদিকে বর্তমান সময়ে আইসিটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলেও এ বিষয়ে প্রশিক্ষন প্রাপ্ত কোন শিক্ষক নেই। তৃতীয় শ্রেণির ৩টি পদের মধ্যে দুটি পদ শূন্য। হিসাবরক্ষক নেই। লাইব্রেরী থাকলেও লাইব্রেরিয়ানের পদই সৃষ্টি করা হয়নি এবং চতুর্থ শ্রেণির ১০টি পদের মধ্যে ২টি শূন্য রয়েছে।

১৯৭২ সালে ফুলগাজী উপজেলা সদরের বাসুড়া গ্রামের অধিবাসী প্রয়াত পরেশ চৌধুরী প্রায় সাড়ে ৮ একর জমি কলেজের জন্য দান করেন। সেখানেই কলেজটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। সরেজমিনে পরিদর্শনকালে দেখা যায়, ফেনী-পরশুরাম সড়কের ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের পাশ দিয়ে আধা কিলোমিটার দূরত্বে একটি সুন্দর সড়ক কলেজ পর্যন্ত চলে গেছে। একাডেমিক ভবন, কলা ভবন, ব্যবসায় শিক্ষা ভবন ও বিজ্ঞান ভবনসহ চারটি ভবন রয়েছে। ক

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্নাতক শ্রেণির দুইজন শিক্ষার্থী বলেন, তাদের সচ্ছল পরিবারের বন্ধুরা প্রায় ১৫-২০ কিলোমিটার দূরে ফেনীসহ বিভিন্ন কলেজে ভর্তি হয়েছে। পরিবারের আর্থিক দিক বিবেচনা করে তারা নিজ এলাকার কলেজে ভর্তি হয়। কলেজে শিক্ষক সংকট। প্রাইভেট পড়ার জন্যও এলাকায় ভাল শিক্ষক নেই। কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. ইব্রাহিম বলেন, শিক্ষক সংকটের কারণে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করতে তাঁদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

"