গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি

  ০২ অক্টোবর, ২০২২

১০০ টাকার জন্য খুন!

চা সিগারেটের দোকানে ক্রেতার ১০০ টাকার কম বাকি ছিল। শনিবার (১ অক্টোবর) রাতে চা সিগারেট খেয়ে ১০০ টাকার নোট দিলে দোকানি আগের পাওনাসহ সেই টাকা রেখে দেয়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও ধস্তাধস্তি হয়। একপর্যায়ে ক্রেতা দোকানে থাকা কাঁচের বড় একটি খণ্ড নিয়ে দোকানিকে আঘাত করেন। সেই আঘাত থেকে দোকানি রক্ষা পেলেও ভাঙা কাঁচের টুকরোয় হাত কেটে রক্তক্ষরণ হয় ক্রেতার। ধস্তাধস্তি ও রক্তক্ষরণে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে নেয়ার পথে মৃত্যু হয় ক্রেতার। তবে নিহতের স্বজনদের দাবি তাকে খুন করা হয়েছে।

নিহতের পরিবার, প্রতিবেশী ও প্রত্যাক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নাটোরের গুরুদাসপুর পৌর সদরের চাঁচকৈড় পুরান পাড়া মহল্লার জহির শাহের মোড়ে মৃত কেবাদ আলীর (দপ্তরী) ছেলে মাসুদ রানার ছোট চা সিগারেটের দোকান। সেখানে চা-সিগারেট খেয়ে আগের পাওনা টাকা নিয়ে বিবাদে জড়ান একই মহল্লার প্রতিবেশী আব্দুল জলিলের ছেলে কাঠ ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম জয় (৪৭)। সাইফুল হার্ট ও শ্বাসকষ্টের রোগী ছিলেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তবে নিহতের ডান হাতে কাটা চিহ্ন রয়েছে।

নিহত সাইফুল ইসলামের ছেলে মো. আশিকের (২৫) অভিযোগ, পাওনা টাকার জেরে দোকানি মাসুদ কাঁচের টুকরা দিয়ে আঘাত করে তার বাবাকে হত্যা করেছে। দোকানি মাসুদের স্ত্রী সীমা পারভীন বলেন, আমার স্বামী নির্দোষ। কাঁচ দিয়ে স্বামীকে আঘাত করতে গেলে ভাঙা টুকরো নিজের হাতে লেগে রক্তপাত হয় ক্রেতা সাইফুলের। এ সময় উত্তেজিত হওয়ায় হার্ট অ্যাটাক হয়ে তার মৃত্যু হতে পারে।

এ বিষয়ে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল মতিন বলেন, আইনি প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
খুন,গুরুদাসপুর
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close