রবিউল ইসলাম, পত্নীতলা (নওগাঁ)

  ১৩ অক্টোবর, ২০২১

দ্বন্দ্ব-কোন্দলে পত্নীতলা উপজেলা বিএনপি

প্রতীকী ছবি

দ্বন্দ্ব, কোন্দল ও বলয়ের মধ্যে আবদ্ধ হয়ে পড়েছে নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলা বিএনপির রাজনীতি। তৃণমূলের শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে যেখানে উপজেলা বিএনপিকে মূল্যায়ন করা হতো সেখানে নানা ইস্যুতে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন সংগঠনের নেতারা।

সূত্র বলছে, দ্বন্দ্ব, কোন্দল আর বলয় তৈরি করতে গিয়ে সংগঠনে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে ফেলেছেন পত্নীতলা উপজেলা বিএনপির নেতারা। তৈরি হয়েছে দুটি গ্রুপ। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন উপজেলা ও ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীরা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে উপজেলা বিএনপির অবস্থা একেবারেই করুণ। যেখানে বর্তমানে সিনিয়র নেতারা রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অজানা কারণে বিরত থাকছেন।

এদিকে খামখেয়ালিপনায় আর স্বেচ্ছাচারিতা প্রতিষ্ঠা করায় পত্নীতলা উপজেলা বিএনপির সকল কার্যক্রমের উপর নওগাঁ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক সকল সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত নির্দেশনা দিয়েছেন। উপজেলা বিএনপিতে এর পরও থেমে নেই কাদা-ছোড়াছুড়ি। তবে উত্তরণের উপায় বাতলে দেওয়ার মতো নেতৃত্ব খুঁজে পাচ্ছে না তৃণমূল।

পত্নীতলা উপজেলা বিএনপির সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, গঠনতন্ত্র বহিরভুত ও পকেট কমিটিতে নেতাদের পছন্দের লোক দিয়ে কমিটি করা হয়েছে। এমনভাবে চলতে চলতে পত্নীতলা বিএনপি কূল হারিয়ে ফেলেছে। এখন বিএনপির কার্যক্রমের ভবিষ্যৎ কী তাও কারো কাছে উত্তর নেই।

পত্নীতলা উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান মিন্টু জানান, পত্নীতলা উপজেলায় বিএপির দুটি গ্রুপ একটি শামসুজ্জোহা খান আর একটি নাজিবুল্লাহ চৌধুরীর। এই দুই গ্রুপেই কমিটি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে টানাহেচরা চলছে।

পত্নীতলা বিএনপির আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেনকে দেওয়ার পরেই অন্য গ্রুপ একটি সংবাদ সম্মেলন করেন। তারা বলেছেন, আনোয়ার হোসেন নজিপুর পৌর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক থাকার পরেও কিভাবে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক হন। এই জন্যই জেলা বিএনপি সকল সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত রাখে।

যদিও আনোয়ার হোসেন নজিপুর পৌর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক থেকে পদত্যাক করে পত্নীতলা উপজেলা বিএনপির আহ্বায়কে আসেন বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে পত্নীতলা থানা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক বায়েজিদ রহমান শাহিন বলেন, পত্নীতলা থানা বিএপির আহ্বায়ক আনিছুর রহমান শেখ ইন্তেকাল করেছেন। পরবর্তীতে আমাদের গঠনতন্ত্র মোতাবেক তার নিচে যে যুগ্ম আহ্বায়ক আছেন তিনিই হবেন ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক। যুগ্ম আহবায়ক যদি অসুস্থ বা সর্বদিক থেকে সমস্যা বোধ মনে হয় সেত্রেক্ষে অদ্য কমিটির যে কোন একজনকে আহ্বায়ক বানাতে হবে এটা গঠনতন্ত্র। 

তিনি বলেন, জেলা কমিটির আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান পৌর কমিটির চলমান যুগ্ম আহ্বায়ককে এনে তার নিজস্ব ক্ষমতা বলে তাকে থানা বিএনপির আহ্বায়ক করেন। বিষয়টি আমরা দৃষ্টিকটু মনে করে ঢাকাতে সিনিয়র নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ করি এবং আমরা সংবাদ সম্মেলন করার পর কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীরা কমিটি স্থগিত করেন।

তার পরেও জেলা আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান বিভিন্ন কৌশলে কার্যক্রম স্থগিত প্রত্যাহার করে নেন। বিএনপিতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে না এনে আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান পুরো নওগাঁ জেলায় বিশৃঙ্খলা তৈরি করছেন বলেও জানান তিনি।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
পত্নীতলা,নওগাঁ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close