ভালো নেই রাজাপুর আবাসন প্রকল্পের বাসিন্দারা

প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:১৫

মো. রিপন মিয়া, কলমাকান্দা

নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার রাজাপুর গ্রামে অবস্থিত আবাসন প্রকল্পটিতে বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। যোগাযোগের রাস্তা, পানীয় জল, শিক্ষা ও চিকিৎসাসহ মৌলিক সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন সেখানকার বাসিন্দারা।

জানা গেছে, ২০০৮ সালে সরকারি উদ্যোগে কলমাকান্দা উপজেলার সদর ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামে ছিন্নমূল ও দরিদ্রদের পুনর্বাসনের জন্য আবাসন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়। ১২০টি পরিবারকে বসবাসের জায়গা দেয়া হয় ওই প্রকল্প এলাকায়। কিন্তু দীর্ঘ প্রায় এক যুগ পার হলেও ওই আবাসন প্রকল্প এলাকার পরিবারগুলোর জন্য বিভিন্ন সুবিধা নিশ্চিত করা হয়নি।

প্রকল্পের শুরুতে ১২টি নলকূপ স্থাপন করা হলেও বর্তমানে অধিকাংশ অকেজো। এছাড়া নলকূপগুলোর আজও আর্সেনিক পরীক্ষা করা হয়নি। কাছাকাছি জায়গায় কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় ছেলে-মেয়েদের দূরের স্কুলে গিয়ে পড়তে হয়। এ কারণে অনেক শিশু ঝরে পড়ছে। স্বাস্থ্যসেবা এবং স্যানিটেশনের সুবিধাও অপ্রতুল। আবাসন প্রকল্পের ঘরগুলোর বহু টিনের চাল ছিদ্র হয়ে গেছে। ফলে অল্প বৃষ্টিতেই ঘরের মাঝে বৃষ্টির পানি পড়ে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, কলমাকান্দা-পাঁচগাঁও সড়কের পূর্বপাশে অবস্থিত আবাসন প্রকল্পের বাসিন্দাদের অধিকাংশই দিনমজুর। তাছাড়া, রিকশা, ভ্যান, নৌকা চালিয়ে এমনকি ভিক্ষাবৃত্তি করেও দিনাতিপাত করছেন। বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতাসহ সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা জালের নানা কর্মসূচি থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন এখানকার বাসিন্দারা। ফলে ১২০ টি পরিবার থেকে বর্তমানে ৭০ টি পরিবার বসবাস করছে আবাসন প্রকল্পে।

এদিকে রাজাপুর আবাসন সমবায় সমিতি নামে একটি সমিতি রয়েছে। তারা আবাসনের নানাবিধ সমস্যা দেখে থাকেন। তাছাড়া আবাসন প্রকল্পের মাঝে রয়েছে বিশাল পুকুর। আবাসন প্রকল্পের দুই পাশে রয়েছে কয়েকটি গর্ত সে গুলো থেকে প্রতিবছরই আবাসন বাসি জংলি মাছ ধরে ভালো মুনাফা পেত। সেগুলোর চলে গেছে স্থানীয় প্রভাবশালীদের দখলে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মশিউর রহমান সেলিম  বলেন, বিষয়টি আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাবো। যাতে করে দ্রুত এই সমস্যার সমাধান হয়।

পিডিএসও/এসএম শামীম