আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি

  ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ধান কাটার মিথ্যা মামলায় হয়রানির অভিযোগ

আমতলীতে চাষাবাদ না করেই ধান কাটার অভিযোগে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। গতকাল শুক্রবার সকালে আমতলী প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের এ অভিযোগ জানান দক্ষিণ আমতলী গ্রামের মো. জহিরুল প্যাদা।

তিনি বলেন, আমতলী থানার অন্তর্গত নাচনাপাড়া মৌজার ১ দশমিক ৩৮ একর জমি ৫০ বছর ধরে ক্রয় সূত্রের মালিক হয়ে ভোগ দখল করছেন তিনি। গত বছর জহিরুল প্যাদা ওই জমি চাষাবাদ করেন। চাষ করা ধান ইব্রাহিম হাওলাদার গংরা জোরপূর্বক কেটে নিয়ে যান। এ ঘটনায় জহিরুল প্যাদা বাদী হয়ে আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্র্রেট আদালতে গত ২০২০ সালের ৯ ডিসেম্বর ইব্রাহিম গংদের আসামি করে একটি মামলা করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানকে তদন্ত শেষে প্রতিবেদন দেওয়ার আদেশ দেন। সরেজমিন তদন্ত করে ঘটনা সত্য বলে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছেন।

চলতি বছরে জহিরুল প্যাদা গংরা জমিতে চাষাবাদ করতে গেলে ইব্রাহিম গংরা বাধা দেয়। বর্তমানে ওই জমি অনাবাদি অবস্থায় পড়ে রয়েছে। কিন্তু ইব্রাহিম গংরা ধান কাটার অভিযোগে গত ৬ সেপ্টেম্বর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্র্রেট আদালতে জহিরুল প্যাদা গংদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেন। এ ব্যাপারে ইব্রাহিম হাওলাদারের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান।

 

 

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close