নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১৮ জানুয়ারি, ২০২১

দেশে সেচব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে : কৃষিমন্ত্রী

বর্তমান সরকারের আমলে দেশে সেচ সুবিধা সম্প্রসারণ, সেচ খরচ হ্রাস ও সেচব্যবস্থার উন্নয়নে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, সরকার সব সময়ই কৃষি ও কৃষকের কল্যাণে কাজ করছে। স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু কৃষি বিপ্লবের ওপর অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু সেচের সম্প্রসারণ ও উন্নয়নে নিয়েছিলেন যুগান্তকারী পদক্ষেপ। তিনি নগদ ভর্তুকি ও সহজ শর্তে ঋণ দিয়ে কৃষকের মাঝে সেচযন্ত্র বিক্রির ব্যবস্থা করেন। গতকাল রবিবার রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে বিএডিসি অডিটোরিয়ামে ‘ভূগর্ভস্থ পানি মনিটরিং ডিজিটালাইজেশন’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন তিনি। বিএডিসি ‘ক্ষুদ্রসেচ উন্নয়নে জরিপ ও পরিবীক্ষণ ডিজিটালাইজেশন প্রকল্পের’ আওতায় এ সেমিনারের আয়োজন করে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, পানির টেকসই ব্যবহার ও পানিসম্পদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্য ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার বাড়াতে সরকার অত্যন্ত গুরুত্ব দিচ্ছে। নদী-খাল খনন ও পুনঃখনন, রাবার ড্যাম, জলাধার নির্মাণ, পানি সাশ্রয়ী পদ্ধতির ব্যবহারসহ অনেক উদ্যোগ বাস্তবায়ন করেছে। এর ফলে ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার ক্রমান্বয়ে বাড়ছে এবং এই উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে। এরই মধ্যে ফসল উৎপাদনে সেচের খরচ অনেক কমেছে; এটিকে আরো কমিয়ে আনতে উদ্যোগ অব্যাহত রয়েছে। সেচ দক্ষতাকে ৩৮% থেকে ৫০% উন্নীত করা হবে যাতে করে ভূউপরিস্থ পানির ব্যবহার বাড়ে ও সেচ খরচ আরো কমে আসে।

------
এ সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষিসচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম। বিএডিসির চেয়ারম্যান মো. সায়েদুল ইসলামের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সেচ ও পানি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আবদুল মজিদ, সিইজিআইএসের নির্বাহী পরিচালক মালিক ফিদা আবদুল্লাহ খান, প্রকল্প পরিচালক মো. জাফর উল্লাহ ও বিএডিসির সদস্য মো. আরিফ বক্তৃতা করেন। সেমিনারের আগে কৃষিমন্ত্রী সেচ ভবন কমপ্লেক্সে নবনির্মিত রেস্ট হাউসের উদ্বোধন করেন।

 

 

"

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close