রাজিবুল ইসলাম

  ২৮ নভেম্বর, ২০২১

একুশে স্বপ্নপূরণ মেয়েদের

ক্রিকেট ইতিহাসে নতুন স্বপ্নের ঠিকানায় বাংলাদেশ। আর সে স্বপ্নের মহানায়ক লাল-সবুজের মেয়েরা। গত ১১ বার নারী ওডিআই বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ হয়নি টাইগ্রেসদের। একুশে (২০২১) এসে ২০২২ বিশ্বকাপের ১২তম আসরে সে স্বপ্নপূরণ করল টাইগ্রেসরা। এর আগে দুইবার বাছাইপর্ব খেললেও সেখানে প্রতিবারই পঞ্চম হয় বাংলাদেশ। গতকাল এক বিবৃতি দিয়ে মেয়েদের বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলার কথা নিশ্চিত করে আইসিসি। এবারের বাছাইপর্ব থেকে তিন দল যাওয়ার কথা ছিল মূল পর্বে। এখন পুরো প্রতিযোগিতা বাতিল হয়ে যাওয়ায় দল তিনটি র‌্যাংকিংয়ের ভিত্তিতে নির্বাচন করেছে আইসিসি।

স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে আগেই মূল প্রতিযোগিতায় খেলা নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারত। ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে পাঁচ নম্বরে থাকার সুবাদে এবার তাদের সঙ্গে যোগ দিল বাংলাদেশ। এছাড়া র‌্যাংকিংয়ে সপ্তম ও অষ্টম স্থানে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানও থাকছে শিরোপা লড়াইয়ে।

দক্ষিণ আফ্রিকায় গত সপ্তাহে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক বাড়ছে। জিম্বাবুয়ে ও আফ্রিকার অন্য দেশগুলোতে পরিস্থিতি খারাপের দিকেই যাচ্ছে। যার প্রভাবে গতকাল শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার বাছাইয়ের ম্যাচটি বাতিল করে দেওয়া হয়। তখনই শঙ্কা জাগে পুরো টুর্নামেন্ট বাতিল হওয়ার। সেটাই সত্যি হলো।

এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি ইউরোপিয়ান দেশ ও যুক্তরাষ্ট্র আফ্রিকার অঞ্চলগুলোতে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করেছে। শ্রীলঙ্কা সরকারও জিম্বাবুয়েসহ দক্ষিণ আফ্রিকার ছয়টি দেশে ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেছে। বাংলাদেশও গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে।

সব মিলিয়ে, পরিস্থিতি আরো খারাপ হওয়ার আগেই জিম্বাবুয়ে থাকা দলগুলোকে দেশে ফেরত পাঠানোর স্বার্থে টুর্নামেন্ট বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান আইসিসির হেড অব ইভেন্ট ক্রিস টেটলে।

‘আসরের বাকি অংশ বাতিল করতে বাধ্য হওয়ায় আমরা অত্যন্ত হতাশ। তবে আফ্রিকার বেশ কয়েকটি দেশ থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাগুলো এত সংক্ষিপ্ত নোটিসে আরোপ করা হয়েছে যে দলগুলোর দেশে ফিরতে না পারার ঝুঁকি তৈরি হতো।

আসরটি সম্পন্ন করতে অনেক পথই ভেবেছি আমরা। কিন্তু এখন এটা সম্ভব নয়। আমরা যত দ্রুত সম্ভব জিম্বাবুয়ে থেকে দলগুলোকে ফেরত পাঠাব। বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ এখন তাদের র‌্যাংকিংয়ের ভিত্তিতে ২০২২ সালের আইসিসি নারী বিশ্বকাপে খেলবে। আর শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ড আইসিসি নারী চ্যাম্পিয়নশিপের পরবর্তী চক্রে তাদের সঙ্গে যোগ দেবে।’

বাছাইয়ের প্রতিযোগিতাটি শুরু হওয়ার আগে থেকেই করোনাভাইরাস চোখ রাঙাচ্ছিল। টুর্নামেন্টে অংশ নিতে জিম্বাবুয়ের উদ্দেশে উড়াল দেওয়ার আগে দলের একাধিক সদস্য কোভিড পজিটিভ হওয়ায় বাধ্য হয়ে নিজেদের সরিয়ে নেয় পাপুয়া নিউ গিনি। জিম্বাবুয়েতে গিয়ে শ্রীলঙ্কা দলের তিন ক্রিকেটারের শরীরে ধরা পড়ে কোভিড-১৯।

তবুও গত রোববার দুই গ্রুপে ভাগ করে মোট ৯ দল নিয়ে শুরু হয়েছিল বাছাই পর্ব। দুই গ্রুপ থেকে সেরা তিনটি করে দল নিয়ে আয়োজিত হওয়ার কথা ছিল সুপার সিক্স। চূড়ান্ত পর্বের জন্য সেরা তিন দল নির্বাচিত করা হতো সেখান থেকেই।

সে পথে ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী পাকিস্তানকে হারানোর পর দ্বিতীয় ম্যাচে তারা উড়িয়ে দেয় যুক্তরাষ্ট্রকে। তৃতীয় ম্যাচটি থাইল্যান্ডের বিপক্ষে হারলেও ‘বি’ গ্রুপের শীর্ষেই ছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। আর ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষে ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

আগামী বছরের ৪ মার্চ নিউজিল্যান্ডে শুরু হবে মেয়েদের ওয়ানডে বিশ্বকাপের মূল লড়াই। ৩ এপ্রিলের ফাইনাল দিয়ে পর্দা নামবে বৈশ্বিক এ আসরের।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close