reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ২৮ নভেম্বর, ২০২১

৯ দফার বাস্তবায়নে চতুর্থ দিন সড়কে শিক্ষার্থীরা

ছবি : সংগৃহীত

সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নিহত শিক্ষার্থী নাঈমের হত্যার দ্রুত বিচারসহ নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাজধানীর ধানমন্ডি ও রামপুরাসহ বিভিন্ন সড়কে অবস্থান করছেন শিক্ষার্থীরা। ৯ দফা দাবির বাস্তবায়নে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়কে অবস্থান করছেন।

চতুর্থ দিনের মতো রবিবার (২৮ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা হাফ পাস ও শিক্ষার্থী নাঈম হত্যার হত্যার বিচারের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করে।

'দাবি মোদের একটাই নিরাপদ সড়ক চাই', ‘পড়তে এসেছি মরতে নয়', ‘জ্বালোরে জ্বালো, আগুন জ্বালো', ‘দিয়ে দিয়ে আশ্বাস, আর ভেঙো না বিশ্বাস’ বলে স্লোগান দেয় শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থী জানান, শুধু আশ্বাসে নয়, দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত তাদের এ আন্দোলন চলবে বলে জানিয়েছে।

আজ রবিবার ও আগামীকাল সোমবার রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে তারা বিক্ষোভ চালিয়ে যাবে। একই সঙ্গে তারা গাড়ির ফিটনেস ও লাইসেন্স যাচাইও করবে।

শিক্ষার্থীদের ৯ দফা দাবি হচ্ছে, নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈমসহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সব শিক্ষার্থীর পরিবারকে এক জীবনের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। সড়ক দুর্ঘটনায় আহত সব যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করতে হবে। ঢাকাসহ সারাদেশে সড়ক, নৌ ও রেলপথে শিক্ষার্থীদের হাফ পাস নিশ্চিত করে প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে।

শিক্ষার্থীরা জানিয়েছে, ৯ দফা দাবি আদায়ে গত বৃহস্পতিবার তারা সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়ে গিয়েছিল। বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ এক সপ্তাহ সময় চেয়েছে। আগামী মঙ্গলবারের মধ্যে তাদের দাবি মেনে প্রজ্ঞাপন জারি করা না হলে ওই দিন দুপুরে শিক্ষার্থীরা বিআরটিএ কার্যালয় ঘেরাও করবে।

গণপরিবহনের অর্ধেক ভাড়ার দাবিতে এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। সম্প্রতি ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির পর রাজধানীর সড়কে এবং দূরপাল্লার বাসের ভাড়া বৃদ্ধি করেন পরিবহনমালিকেরা। এর পরই এ আন্দোলনের শুরু।

এরই মধ্যে গত বুধবার কলেজে যাওয়ার পথে গুলিস্তানে রাস্তা পার হওয়ার সময় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ময়লার গাড়ির চাপায় নিহত হন নাঈম হাসান। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এর পরদিন বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার দিকে রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি কমপ্লেক্সের উল্টো দিকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ময়লার গাড়ির চাপায় প্রাণ হারান সংবাদকর্মী আহসান কবির। তিনি দৈনিক সংবাদে কর্মরত ছিলেন। তিনি প্রথম আলোর সাবেক কর্মীও। শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনে নিরাপদ সড়কের দাবিও এর ফলে আরও জোরালো হয়ে ওঠে।

শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের মুখে সারা দেশে বিআরটিসির বাসে ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে অর্ধেক ভাড়া নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। গত শুক্রবার এ তথ্য জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি জানান, আগামী এক ডিসেম্বর থেকেই এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

সরকারি এ পরিবহন পরিষেবায় অর্ধেক ভাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত হলেও রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহরে চলা সিংহভাগ ব্যক্তিমালিকানাধীন বাসের ক্ষেত্রে অর্ধেক ভাড়ার বিষয়টি এখনো ঝুলে আছে। এ নিয়ে সরকারের সঙ্গে দুই দফা বৈঠক হয়েছে পরিবহনমালিকদের। তবে এর কোনো সুরাহা হয়নি।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
৯ দফা,সড়কে শিক্ষার্থীরা,বাস্তবায়ন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close