জয়পুরহাট প্রতিনিধি

  ২৫ নভেম্বর, ২০২১

মাত্র একশ তিন টাকায় স্বপ্ন পূরণ, চোখে-মুখে খুশির ঝিলিক

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

মাত্র ১ শ ৩ টাকায় স্বপ্নপূরণ হলো জয়পুরহাটের ১৯ শিক্ষার্থীর। ঘুষ কিংবা কোনো তদবির ছাড়াই পুলিশের চাকরি হয়েছে তাদের। ফলে মূল্যায়ন হয়েছে মেধা ও যোগ্যতার। স্বপ্ন পূরণ হয়েছে হতদরিদ্র মা-বাবার।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) রাতে জয়পুরহাট পুলিশ লাইন্সে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে রেজাল্ট ঘোষণা করা হয়। এসম অনেকেই আনন্দে কেঁদে ফেলেন।

জয়পুরহাট সরকারি শিশু পরিবারে বেড়ে উঠা এতিম মাহমুদুল হাসান বলেন, মাত্র ১শ ৩ টাকায় পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পাবো তা কখনোই কল্পনা করিনি। মাহমুদুল হাসান জানান তার বাবা ছোটবেলায় মারা গেলে তারপর সে শিশু পরিবারেই বেড়ে উঠেন, আর তার মা ছোট বোনকে নিয়ে মানুষের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালাতেন, আজকে তার এই চাকরি জীবনের বড় পরিবর্তন আনবে বলেও জানান তিনি।

ফাতেমা ও মাহমুদুল হাসানের মতোই মোট ১৯ জন শুধুমাত্র মেধা ও যোগ্যতায় মাত্র ১০৩ টাকায় পুলিশে চাকরি পেয়েছেন।

জেলা পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা জানান, জয়পুরহাট জেলায় পুলিশের ১৯ জন কনস্টেবল নিয়োগে গত ১৫ ও ১৬ নভেম্বর ৭৬০ জন চাকরি প্রার্থী প্রাথমিক পরীক্ষায় অংশ নেয়। এতে যাচাই-বাছায়ের পর শারীরিক সক্ষমতা অর্জন করে ১৬৭ জন চাকরি প্রার্থী। ১৭ নভেম্বর এদের মধ্যে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয় ৪৫ জন। আর ২৪ নভেম্বর বুধবার চূড়ান্ত পরীক্ষায় পাস করে ২৪ জন। যাদের মধ্যে ওইদিনই নিয়োগ দেওয়া হয় ১৯ জনকে। আর অপেক্ষমাণ আছেন ৫ জন।

তিনি জানান, বাংলাদেশের ইতিহাসে এ পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগ নজিরবিহীন ঘটনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আইজিপির শতভাগ স্বচ্ছতার সঙ্গে এ নিয়োগ সম্পন্ন করার জন্য কড়া নির্দেশনা দিয়েছিলেন। আমরা পেশাদারিত্ব, সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে এ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছি।

দেখা যায়, এবারের পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি প্রাপ্তদের বেশিরভাগই দরিদ্র পরিবারের সন্তান। তাদের কেউ দিনমজুরের সন্তান, কেউ ট্রাক চালকের আবার কেউবা এতিম। জীবনের সঙ্গে যুদ্ধ করে কোনোমতে পড়াশোনার খরচ চালিয়ে চূড়ান্ত সাফল্য অর্জন করেছে। ফলে চাকরি হওয়ায় অনেকের চোখেই ছিল আনন্দাশ্রু।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জয়পুরহাট,পুলিশে চাকরি,১৯ তরুণ,আনন্দ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close