পটুয়াখালী প্রতিনিধি

  ২৬ নভেম্বর, ২০২০

সরকারি জমি পেলেন চ্যাম্পিয়ন রাহিমা

সরকারের পক্ষ থেকে ৫০ শতক জমি পেলেন জাতীয় টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়ন ও পটুয়াখালীর কৃতী খেলোয়াড় রাহিমা আক্তার। ২০১৬ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর হয়ে জাতীয় টেবিল টেনিস টুর্নামেন্টের একক ও দ্বৈত প্রতিযোগিতার শিরোপা জেতেন রাহিমা। তিনি পটুয়াখালীর শেরেবাংলা সড়কের চা দোকানি রুস্তম চৌকিদারের মেয়ে।

শুধু জাতীয় পর্যায়েই নয়, আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও আলো ছড়িয়েছেন রাহিমা। পদক জিতেছেন এশিয়ান গেমসে। জাপান, জার্মানি, থাইল্যান্ড, চীন, ভারত ও নেপালে অনুষ্ঠিত আসরগুলোতে অংশ নিয়েও দেশকে স্বর্ণ ও বোঞ্জ পদক এনে দিয়েছেন তিনি।

------
এসব কৃতিত্বের পুরস্কারস্বরূপ ২০১৭ সালের ৩ জুলাই পটুয়াখালীর তৎকালীন জেলা প্রশাসক শামিমুল হক রাহিমাকে শহরের পশ্চিম হেতালিয়া বাঁধঘাট এলাকায় ৫০ শতক জমি দেওয়ার ঘোষণা দেন। বর্তমান জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী সেটাই এবার বাস্তবায়ন করলেন। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার লতিফা জান্নাতির সহযোগিতায় গতকাল জমির কাগজপত্র হস্তান্তর করা হয়। মালিকানা বুঝে পেয়ে বিকালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে জমিতে শতাধিক বনজ, ফলদ ও ঔষধি গাছের চারা রোপণ করেন রাহিমা।

রাহিমার মা নুরজাহান বেগম ২০১৭ সালে মারা যান। বাবা, এক ভাই ও পাঁচ বোনের দায়িত্ব এখন কৃতী এই খেলোয়াড়ের কাঁধে। সরকারের পক্ষ থেকে বসবাসের সুব্যবস্থা হওয়ায় কিছুটা ভারমুক্ত হলেন রাহিমা। আর তাই জেলা প্রশাসনকে কৃতজ্ঞতা জানাতে ভুলেননি তিনি।

 

 

 

"

আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়