reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২

নামাজরত মুসল্লির সামনে দিয়ে হাঁটা কি বৈধ

ফাইল ছবি

নামাজ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। এর মাধ্যমে আল্লাহ তাআলার সঙ্গে বান্দার সরাসরি সম্পর্ক স্থাপিত হয়। এ সম্পর্কে বিঘ্ন ঘটানো বড় গুনাহ। নামাজরত ব্যক্তির সামনে দিয়ে হেঁটে গেলে তার মনোযোগ নষ্ট হয়। তাই ইসলাম একে বড় গুনাহ হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

মহানবী (সা.) বলেন, নামাজি ব্যক্তির সামনে দিয়ে চলে যাওয়া ব্যক্তি যদি জানত তার কী পরিমাণ গুনাহ হচ্ছে, তাহলে সে প্রয়োজনে ৪০ (বর্ণনাকারী আবুন নাজার বলেন, আমি জানি না, তিনি ৪০ দিনের কথা বলেছেন, নাকি ৪০ মাসের, নাকি ৪০ বছরের।’) পর্যন্ত দাঁড়িয়ে থাকত, তবুও নামাজির সামনে দিয়ে অতিক্রম করত না। (বুখারি ও মুসলিম)

ব্যাখ্যাকারগণ বলেন, এখানে ৪০ কী—তা অস্পষ্ট রেখে নবীজি (সা.) মূলত বিষয়টির গুরুত্ব তুলে ধরেছেন। (শরহুন নববি)

এ ক্ষেত্রে শরিয়তের বিধান হলো, বড় মসজিদে নামাজ আদায় করলে এক কাতারের ভেতরে সামনে দিয়ে হাঁটা যাবে না। একইভাবে বড় মাঠে নামাজ আদায় করলেও একই বিধান প্রযোজ্য। যদি ছোট মসজিদে অথবা ছোট ঘরে নামাজ আদায় করে, তবে মসজিদের পশ্চিম দেয়াল পর্যন্ত তার সামনে দিয়ে হাঁটা যাবে না।

নামাজিদের উচিত, মানুষের চলাচলের জায়গায় নামাজ আদায় করতে না দাঁড়ানো। দাঁড়ালেও যেন সুতরা ব্যবহার করে। সুতরা হলো, দৈর্ঘ্যে কমপক্ষে এক হাত ও প্রস্থে কমপক্ষে এক আঙুল বা তার চেয়ে বেশি মোটা কোনো লাঠি সামনে গেড়ে দেওয়া বা দাঁড় করিয়ে দেওয়া। সামনে দিয়ে চলে যাওয়া ব্যক্তিকে নামাজি ব্যক্তি ইঙ্গিতে কিংবা সুবহানাল্লাহ বলে বারণ করতে পারবে। হাত দিয়ে ধাক্কা দেওয়া উচিত নয়। নারীরা ইশারা করবে বা হাততালি দেবে।

পিডিএস/এমএইউ

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
নামাজ,মুসল্লি,রাসূল,গোনাহ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close