এম এ মাসুদ, গণমাধ্যমকর্মী

  ০৮ এপ্রিল, ২০২১

সন্ধ্যা হলেই নৈসর্গিক হয়ে ওঠে যে পার্ক!

মনোরম পরিবেশ, উত্তরের উন্মুক্ত নির্মল হাওয়া ও নজরকাড়া জায়গা। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম ও ফকির লালন শাহের স্মৃতিস্তম্ভ নিয়ে তৈরি গাইবান্ধার ‘সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ পার্ক’। সন্ধ্যা নেমে এলেই যেন আরও নৈসর্গিক হয়ে ওঠে পার্কটি। 

৬.৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনের সুন্দরগঞ্জ পৌরসভায় জনসংখ্যা রয়েছে প্রায় ১৮ হাজার। ছোট্ট এ পৌরশহরের নাগরিকদের জন্য নেই বেড়ানো কিংবা অবসর সময় কাটানোর কোনো জায়গা। নাগরিকদের মানসিক প্রশান্তির গুরুত্ব উপলব্ধি থেকেই স্থানীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারি উদ্যোগ নেন একটি পার্ক তৈরির। বেছে নেয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও উপজেলা পরিষদের পাশে পরিত্যক্ত বিশাল পুকুরের চারপাশ। করা হয় পুকুরটি পুনরায় খনন। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস কর্তৃক বরাদ্দকৃত টিআর থেকে ইতোমধ্যেই পুকুরের পূর্বপ্রান্তে করা হয়েছে টাইলসকৃত রাস্তা, সারি সারি বসার জায়গা। লাগানো হয়েছে উত্তর ও পূর্বপাশে লাল, নীল, সাদা, সবুজ বাহারি রঙের সব বাতি। সন্ধ্যা নেমে এলেই জ্বলে ওঠা ওইসব বাতির আলোয় পার্কটি হয়ে ওঠে ঝলমলে। এ যেন এক নৈসর্গিক পরিবেশ! যা সহজেই দৃষ্টি কাড়বে বিনোদনপ্রেমীদের।

উত্তর-পশ্চিম কর্নারে কাজী নজরুল ইসলাম, লালন শাহ এবং উত্তর-পূর্ব কর্নারে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিস্তম্ভ সাহিত্য-সংস্কৃতিপ্রেমীদের দেবে অনুপ্রেরণা। ইতোমধ্যেই পার্কটিতে ঘুরতে আসছেন নানা বয়সের নর-নারী। তারা কাটাচ্ছেন সময়, দিচ্ছেন আড্ডা।

ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারি বলেন, একুশ সালের মধ্যেই পুকুরটির পাড় সংস্কার করে কয়েকটি রাস্তা করবো, মেয়েদের জন্য করবো আলাদা একটি রাস্তা ও একটি পিক কর্নার। যেহেতু এটি করার জন্য আলাদা কোনো বরাদ্দ নেই, সেহেতু আমরা এগুলো টিআর দিয়ে করবো। আর জেলা প্রশাসকের কাছে আমরা বরাদ্দ চাচ্ছি, তিনি বরাদ্দ দিলে আরও ভালো করে করবো।    

পুরো পরিকল্পনা অনুযায়ী পশ্চিম এবং মূল রাস্তা-সংলগ্ন দক্ষিণ পাড়টি সংস্কার, পাকাকরণ, বসার জায়গা ও লাইটিং করা হলে তা পৌরশহরকে করবে আরও আকর্ষণীয়।

শহরবাসী ছাড়াও গোটা উপজেলার মানুষ পাবেন বেড়ানোর জায়গা, কাটবে অবসর সময়, পাবেন মানসিক স্বস্তি—তেমনটি প্রত্যাশা করছেন স্থানীয়রা।  

পিডিএসও/হেলাল

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ পার্ক,সুন্দরগঞ্জ,নৈসর্গিক
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close