খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

  ২২ জুন, ২০২২

খানসামায় গৃহবধূর গলায় ফাঁস

প্রতীকী ছবি

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় সালমা আক্তার (২৮) নামে এক গৃহবধূ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (২১ জুন) দুপুরে উপজেলার খামারপাড়া ইউনিয়নের কায়েমপুর গ্রামের (নানচি পাড়ায়) এ ঘটনা ঘটে।

সালমা আক্তার ঐ এলাকার আনসার ভিডিপির সদস্য আমির উদ্দিন (৩৫) এর স্ত্রী ও পাশ্র্ববর্তী নীলফামারী সদর উপজেলার কুন্দপুকুর ইউনিয়নের শামসুল ইসলামের মেয়ে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সালমা আক্তারের দুটি ছেলে রয়েছে। তাদের নাম আবদুল গনি (৮) ও অন্য ছেলে ওমর ফারুকের বয়স আড়াই বছর।

এ বিষয়ে স্থানীয় (দক্ষিণ মাঝা পাড়ার) শাহিনুর ইসলাম (৩৮) জানান, দুপুরে গোসল করার সময় আমার স্ত্রীর মাধ্যমে এ ঘটনা শুনেছি। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে আত্মহননকারীর ভাতিজা শাহিনকে সালমার মরদেহ নামাতে দেখেছি।

কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করলেন জানতে চাইলে ওই প্রতিবেশী জানান, আজ থেকে ২-৩ দিন আগে শাশুড়ির সঙ্গে নিহতের ঝগড়া হয়েছিল, কিন্তু আজ তেমন কিছু চোখে পড়েনি বা শুনিনি। তারপরও কেন যে এই ঘটনা ঘটাল তা বলতে পারছি না।

এ বিষয়ে নিহত সালমার চাচাত ভাই মহির উদ্দিন অভিযোগ করেন, আমার বোন আত্মহত্যা করতে পারে না। ওকে মেরে মরদেহ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। থানায় অভিযোগ করা হয়েছে কি না সে ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিয়ে থানায় যাব।

এই রিপোর্ট করা পর্যন্ত (রাত সাড়ে ৮টা) এ বিষয়ে খানসামা থানা পুলিশ জানিয়েছে, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। প্রতিবেদন পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
খানসামা,দিনাজপুর,গৃহবধূ,আনসার ভিডিপি,গলায় ফাঁস
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close