করোনাভাইরাস : অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়ায় দুর্যোগ ঘোষণা

প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০২০, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যে দুর্যোগ ঘোষণা করা হয়েছে। রাজধানী মেলবোর্নে জারি করা হয়েছে রাত্রিকালীন কারফিউ। অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মেলবোর্নে আগে থেকেই ছয় সপ্তাহের লকডাউন এবং মানুষের চলাফেরার ওপর কড়া বিধিনিষেধ রয়েছে। তার মধ্যেই জারি হলো কারফিউ। শহরটিতে গত সপ্তাহে নতুন করে রেকর্ডসংখ্যক মানুষ করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে। গত রোববার সেখানে এক দিনে সর্বোচ্চ ৬৭১ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে এবং মারা গেছে সাতজন। সংক্রমণ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। এ পরিস্থিতিতে লোকজনের চলাচলের ওপর আরো কড়া ব্যবস্থা নিয়ে গত রোববার থেকে অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জনবহুল রাজ্য ভিক্টোরিয়ায় চতুর্থ পর্যায়ের বিধিনিষেধ কার্যকর হচ্ছে। ফেডারেল সরকারও রাজ্য সরকারের এ পদক্ষেপকে সমর্থন দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন তার এক ফেসবুক পোস্টে বলেছেন, দুঃখজনক হলেও মহামারির বিস্তার ঠেকাতে এ পদক্ষেপ জরুরি। বিবিসি জানায়, নতুন বিধিনিষেধের আওতায় মেলবোর্নজুড়ে কারফিউ চলবে স্থানীয় সময় রাত ৮টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত। এ সময় মানুষ কেবলমাত্র কাজের প্রয়োজনে কিংবা চিকিৎসাসেবার প্রয়োজনে বাড়ি থেকে বেরোতে পারবেন। শহরের কোনো বাসিন্দা কোনোকিছু কেনাকাটা বা ব্যায়ামের জন্য বাড়ি থেকে পাঁচ কিলোমিটারের বেশি দূরে যেতে পারবেন না। বাড়ির বাইরে দিনে একবার ব্যায়াম করা যাবে মাত্র এক ঘণ্টা। রাজ্যের শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে পড়াশোনা করবে। বন্ধ থাকবে চাইল্ড কেয়ার। গত বৃহস্পতিবার থেকে রাজ্যে তৃতীয় পর্যায়ের বিধিনিষেধ আরোপ হবে। অর্থাৎ বন্ধ হয়ে যাবে রেস্তোরাঁ, ক্যাফে, পানশালা এবং ব্যায়ামাগার। রাজ্যে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিকে ‘দুর্যোগ’ ঘোষণা করার ফলে মানুষকে স্বাস্থ্যসুরক্ষা বিধি মানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ অতিরিক্ত ক্ষমতা পাবে।

 

মহামারীর শুরুর দিকে কয়েকমাস বিশ্বের অনেক দেশের চাইতে অস্ট্রেলিয়ায় পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে ছিল। লকডাউন দিয়ে এবং অন্যদেশ থেকে আগতদের জন্য কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে সফল হয়েছিল দেশটি। অস্ট্রেলিয়ায় মোট করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে প্রায় ১৮ হাজার জন এবং মারা গেছে ২শ’র বেশি মানুষ। কিন্তু সম্প্রতি ভিক্টোরিয়ায় করোনাভাইরাসের প্রকোপ যেভাবে বাড়ছে তাতে তা ঠেকানো কঠিন হয়ে পড়েছে। রাজ্যের ব্যবসা-বাণিজ্যে সোমবার আরও কিছু বিধিনিষেধের ঘোষণা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ভিক্টোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী। তবে মেলবোর্নের তুলনায় রাজ্যের অন্যান্য জায়গায় কড়াকড়ি কিছুটা কম থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

 

"