যশোর প্রতিনিধি

  ২৫ জানুয়ারি, ২০২৩

মণিরামপুরে ১০ জুয়াড়ি আটক  

প্রতীকী ছবি

যশোরের মণিরামপুর উপজেলায় জুয়ার আসরে হানা দিয়ে ১০ জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) গভীর রাতে উপজেলার চন্ডিপুর শেখপাড়া থেকে এদেরকে আটক করা হয়। এ সময় ৫ লাখ ৮৫ হাজার ৩১০ টাকা ও ৮ লিটার চোলাই মদ জব্দ করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, চন্ডিপুর গ্রামের স্থানীয় ইউপি সদস্য মাহবুর রহমান, একই গ্রামের রোস্তম আলী সরদারের ছেলে আব্দুল হামিদ, মোহনপুর পশ্চিমপাড়ার মুজিবুর রহমানের ছেলে রিপনুজ্জামান রিপন, একই গ্রামের মহাসীন সরদারের ছেলে মাহমুদুর রহমান লিটন, হানুয়ার গ্রামের ইয়ামিন সরদারের ছেলে আব্দুস সালাম, ঝিকরগাছা উপজেলার জাফরনগরের নূর ইসলামের ছেলে সোহাগ হোসেন, সাতক্ষীরার কলারোয়ার কলাটুপি গ্রামের ইব্রাহীম গাজীর ছেলে রফিকুল ইসলাম, যশোর সদর উপজেলার পাগলাদাহ গ্রামের মোজাহার বিশ্বাসের ছেলে শহিদ বিশ্বাস, একই উপজেলার পালবাড়ি এলাকার জামাত আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম ও খুলনার বাঘমারা গ্রামের নরেশ রায়ের ছেলে স্নেহাংশু রায়।

যশোরের সহকারী পুলিশ সুপার আশেক সুজা মামুন জানান, তিনিসহ থানার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মনিরুজ্জামান ও পরিদর্শক (তদন্ত) গাজী মাহবুবুর রহমান অভিযানের নেতৃত্ব দেন।

পরিদর্শক (তদন্ত) গাজী মাহবুবুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে চন্ডিপুর শেখপাড়ার আনোয়ার পারভেজ অনুজ বিভিন্ন এলাকা থেকে জুয়াড়িদের এনে তার বসত ঘরে জুয়ার আসর বসাতো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে জুয়ার বোর্ডে হানা দিয়ে ১০ জনকে আটক করেছি। এ সময় ৫ লাখ ৮৫ হাজার ৩১০ টাকা ও ৮ লিটার চোলাই মদ ঘর থেকে জব্দ করা হয়েছে।

গাজী মাহবুবুর রহমান আরও বলেন, আটককৃতরা জানিয়েছে- আনোয়ার পারভেজ মাথাপ্রতি এক হাজার টাকা নিয়ে তার বাড়িতে জুয়ার আসর বসান। মামলায় তাকে পলাতক আসামি দেখানো হয়েছে।

মণিরামপুর থানার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মনিরুজ্জামান বলেন, জুয়ার এ আসরটি আগে ঝিকরগাছায় বসত। সেখান থেকে উঠে এসে তারা চন্ডিপুর এলাকায় আসর বসায়। স্থানীয় মেম্বর মাহাবুর রহমান জুয়ার বোর্ড পরিচালনা করত। সে নিজে ১২ হাজার টাকা নিয়ে ওই রাতে খেলতে গিয়েছিল। এ ঘটনায় বুধবার (২৫ জানুয়ারি) থানায় পৃথক দুটি মামলা করা হয়েছে। পরে আসামিদের যশোর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
মণিরামপুর,জুয়াড়ি আটক
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close