reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ২১ জুন, ২০২২

পদ্মার স্রোতে বিলীন স্কুলের চারতলা ভবন

ছবি : সংগৃহীত

প্রবল স্রোতের তোড়ে পদ্মায় ভেঙে পড়েছে মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার আজিমনগর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা ভবন। বিদ্যালয়টি পদ্মার দুর্গম চরের তিনটি ইউনিয়নের একমাত্র বিদ্যাপীঠ।

মঙ্গলবার (২১ জুন) দুপুর দেড়টার দিকে কোটি টাকা ব্যয়ে এমপিওভুক্ত ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা ভবনটি হঠাৎ ধসে পড়ে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আওলাদ হোসেন চৌধুরী বিপ্লব বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্কুলভবন ধসে যাওয়ায় সাড়ে চারশ শিক্ষার্থীর লেখাপড়া নিয়ে অনিশ্চিয়তা তৈরি হয়েছে। তবে বিকল্প জায়গায় পাঠদানের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান শিক্ষক।

স্কুলের কাছাকাছি হাতিঘাটা এলাকায় পদ্মার ভাঙনে গত এক সপ্তাহে পূর্ব পাড়ার আশ্রয় প্রকল্পের ১০টি ঘরসহ পাঁচটি বাড়িও পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে।

উপজেলার আজিমনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসেন বলেন, `আজ (মঙ্গলবার) দুপুরে হাতিঘাটা এলাকায় অবস্থিত চারতলা স্কুল ভবনটি পদ্মা নদীর তীব্র স্রোতে বিলীন হয়ে গেল।’ গত কয়েকদিন ধরেই পদ্মার ভাঙনে পড়ে অনেকেই ঘর-বাড়ি হারা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (এইএনও) সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘স্কুল ভবনটি পদ্মার নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।’

মানিকগঞ্জ জেলা সহকারী শিক্ষা প্রকৌশলী মো. হাকিমুল হাসান সিদ্দিকী। তিনি বলেন, ‘গত ১৯ জুন পরিদর্শন শেষে বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবনটি নিলামের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু তার আগেই ভবনটি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়।’

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাইন উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘ভাঙন এলাকায় দুই দিন আগে আমাদের প্রতিনিধি পরিদর্শন করেছেন। স্কুলটি ভাঙন ঝুঁকিতে থাকায় আমরা দেড় বছর আগেই স্কুল ভবনের নির্মাণকাজ বন্ধ করতে উপজেলা প্রশাসন ও শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরকে রিপোর্ট দিয়েছিলাম। স্কুল ভবনের নির্মাণকাজ বন্ধও ছিল।’

উল্লেখ্য, ২০১৬/১৭ অর্থবছরে শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীনে ৬৬ লাখ ৯৭ হাজার টাকা ব্যয়ে চারতলা ফাউন্ডেশনে একতলা ভবন নির্মাণ করা হয়। পরবর্তীতে ২০১৯/২০ অর্থবছরে ১ কোটি ২৩ লাখ ৫০ হাজার টাকায় বাকি তিনতলা নির্মাণের অনুমোদন পায়।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
পদ্মার স্রোত,বিলীন,স্কুল
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close