কুমিল্লা প্রতিনিধি

  ০৯ মে, ২০২২

কুমিল্লায় ছাত্রলীগ-স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকর্মীদের ওপর গুলি, আটক এলডিপি মহাসচিব

এলডিপি মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ।

কুমিল্লার চান্দিনায় লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ এর গুলিতে ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকবলীগের দুই নেতা গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় সাবেক সংসদ সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী রেদোয়ান আহমেদকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (৯ মে) দুপুর আড়াইটায় চান্দিনা উপজেলা সদরের রেদোয়ান আহমেদ কলেজ ক্যাম্পাস-২ মমতাজ আহমেদ ভবনের সামনে ওই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপর রেদোয়ান আহমেদ থানায় আশ্রয় নিলে উত্তেজিত ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা-কর্মীরা চান্দিনা থানার প্রধান ফটক ঘেরাও করে তার বিচার দাবিতে স্লোগান দিতে শুরু করে।

আহতরা হলেন- চান্দিনা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম সরকারের ছেলে পৌর ছাত্রলীগ নেতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাহমুদুল হাসান জনি সরকার (২২)। অপরজন হলেন চান্দিয়ারা গ্রামের নূরুল ইসলাম এর ছেলে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নাজমুল হোসেন নাঈম (২৮)। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমাবার চান্দিনা কলেজ মাঠে ঈদ পুনর্মিলনী সমাবেশ ডাকে এলডিপি। একই দিনে ছাত্রলীগ ও কুমিল্লা উত্তর জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ যৌথ সমাবেশ ডাকে। এতে চান্দিনা মাঠে সমাবেশে ১৪৪ ধারা জারি করে পুলিশ। সোমবার দুপুর দুইটার পর সাবেক সাংসদ রেদোয়ান আহমেদ কলেজের গেইট থেকে বের হলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তার গাড়িকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়ে। একপর্যায়ে রেদোয়ান আহমদ ছাত্রলীগ কর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি করেন।

পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা কাজী আখলাকুর রহমান জানান, রেদোয়ান আহমেদ রাজনৈতিক আধিপত্য বিস্তার করতে আমাদের নেতা-কর্মীদের উপর অমানবিকভাবে গুলি চালায়।

তবে সাবেক প্রতিমন্ত্রী ড. রেদোয়ান আহমেদ জানান, আমাদের পূর্ব নির্ধারিত প্রোগ্রাম ছিল। আমাকে প্রধান অতিথি করে চিঠির মাধ্যমে পৌর এলডিপি কার্যক্রম পরিচালনা করে। এরই মধ্যে আমাদের প্রধান ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগকে প্রোগ্রাম করার জন্য অনুমতি দেওয়া হয়। আমরা ক্যাম্পাস-২ মমতাজ আহমেদ ভবনে পূর্ব নির্ধারিত প্রোগ্রাম করার কথা। দুপুরে আমি ক্যাম্পাস-২ এর সামনে গেলে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের লোকজন আমার গাড়িতে হামলা করে। আমি আত্মরক্ষার্থে আমার লাইসেন্স করার সর্টগানে গুলি চালাই। কার গায়ে গুলি লেগেছে আমি বলতে পারবো না। পরে আমি থানায় এসে আশ্রয় নেই।

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক লিটন সরকার বলেন, রেদোয়ান আহমেদ চান্দিনার মাটিতে বর্বরোচিত ঘটনা ঘটিয়েছেন। তিনি নিজ হাতে আমার নেতাকর্মীদের গুলি করেছেন। তারা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি।

সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (দাউদকান্দি সার্কেল) মো. ফয়েজ ইকবাল জানান, পাবলিক রোষানলে রেদোয়ান আহমেদ থানায় আশ্রয় নিতে আসলে আমরা তাকে আটক করি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কুমিল্লা,এলডিপি মহাসচিব,গুলি
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close