রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

  ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

রৌমারীতে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে বেদম প্রহার

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে যৌতুকের জন্য আনোয়ারা খাতুন (৩০) নামের এক গৃহবধূকে বেদম পিটিয়েছে  স্বামী। তাকে উদ্ধার করে রৌমারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলার শৌলমারী ইউনিয়নের নতুনশৌলমারী গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শৌলমারী ইউনিয়নের চতলাকান্দা গ্রামের আবুল হোসেনের মেয়ে আনোয়ারার সাথে একই ইউনিয়নের নতুনশৌলমারী গ্রামের তসোর মিস্ত্রির ছেলে নুর আলমের ১৫ বছর আগে বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের ঘর সংসার ভালোই চলছিল। তাদের দুই সন্তান রয়েছে। বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই স্ত্রীর কাছে যৌতুকের দাবি করে আসছে স্বামী তার পরিবারের লোকজন। যৌতুক দিতে না পারায় ক্ষিপ্ত হয়ে তার স্বামী শাপলা নামের এক মেয়েকে বিয়ে করেন। এতে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীর উপর নেমে আসে অমানসিক নির্যাতন। স্বামী নুর আলমশ্বশুর তসোর মিস্ত্রি, শাশুড়ি নুরবানু ননদ জাহানারাসহ পরিবারের লোকজন মিলে প্রথম আনোয়ারাকে বেধরক মারপিট করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। পরে আশপাশের লোকজন আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রৌমারী হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমানে সে চিকিৎসাধীনে রয়েছে।

এঘটনায় নির্যাতনের শিকার আনোয়ারার বাবা আবুল হোসেন বাদী হয়ে রৌমার্রী থানায় স্বামী, শাশুড়ি, ননদ শ্বশুরের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোন্তাছেল বিল্লাহ জানান, অভিযোগ পেয়েছি এবং তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পিডিএসও/ জিজাক

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
বেদম প্রহার,গৃহবধূ,যৌতুক,রৌমারী
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close