কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি

  ০৭ জুন, ২০২১

থানায় নিলেও পরে সামাজিক বৈঠকে সমাধানের চেষ্টা

স্কুলছাত্রীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টায় যুবক আটক

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের দয়াময় সিংহ উচ্চবিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী বিদ্যালয় থেকে এ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে এক বখাটে যুবক পথরোধ করে একটি ঘরে আটকিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

এ অভিযোগে বখাটে যুবককে ধরে কমলগঞ্জ থানায় সোপর্দ করা হলে পরে সামাজিক গ্রাম্য বৈঠকে বিষয়টির নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয়া হয়। সোমবার দুপুর ১২টায় রানীরবাজার এলাকায় শ্লীলতাহানির চেষ্টার এ ঘটনা ঘটে। 

অভিযুক্ত বখাটে যুবক মো. আব্দুস সালাম (২৮) কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের জামিরকোনা আব্দুস গ্রামের সুবহান মিয়ার ছেলে।

এলাকাবাসী ও দয়াময় সিংহ উচ্চবিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক প্রভাত কুমার সিংহ প্রতিদিনের সংবাদকে জানান, সোমবার বিদ্যালয়ে এসে জামিরকোনা গ্রামের এক ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী (১২) এ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে বাড়ি যাচ্ছিল। দুপুরে পথিমধ্যে একই গ্রামের মো. আব্দুস সালাম (২৮) এ ছাত্রীর পথরোধ করে তাকে ধরে নিয়ে একটি ঘরে মুখ চেপে ধরে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। ছাত্রীটি বখাটের সাথে রীতিমত ধস্তাধস্তি করে পালিয়ে এসে বিদ্যালয়ে অভিযোগ করে।

এসময় বিদ্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন, কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিছ বেগম, কমলগঞ্জ ৫ নং সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান,ইউপি সদস্য রোপেন সিংহ। এ ঘটনা শুনে বখাটেকে ধরে এনে বিদ্যালয়ে রেখে ছাত্রীর বাবার মতামত জানতে চাওয়া হয়।

ছাত্রীর বাবা এ ঘটনায় থানায় নিয়মিত মামলা দেয়ার কথা জানালে আটক অভিযুক্ত বখাটে যুবককে কমলগঞ্জ থানার পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। বখাটে যুবক কয়েক ঘন্টা থানা হাজতে আটক থাকার পর গ্রাম্য একটি বিশেষ মহলের উদ্যোগে ছাত্রীর বাবাকে নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শণসহ বোঝানোর চেষ্টা করায় বিষয়টি এখন গ্রাম্য সামাজিক বৈঠকে সমধানের চেষ্টা করা হচ্ছে।

কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিছ বেগম প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, ‘ছাত্রীর বাবার এ ঘটনায় মামলা করতে চাইলে আটক যুবককে থানায় সোপর্দ করা হয়। এখন আবার কি কারণে ঘটনাটি সামাজিক বৈঠকের চেষ্টা চলছে তা তিনি বুঝতে পারছেন না বলে জানান। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিছ বেগম আরও বলেন, এখন যদি ছাত্রীর বাবা কোন আইনী সহায়তা চাচ্ছেন না এখানে আর কারো কিছু করার নেই।’

কমলগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানা প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, মামলার করার জন্য বখাটেকে থানায় আনা হয়েছিল। এখন গ্রাম্য কিছু লোকজনের উদ্যোগে সামাজিক বৈঠকের চেষ্টা করলে ও ছাত্রীর বাবা তাতে রাজি হচ্ছেন বলে তিনি জানান। তিনি আরও বলেন, কেউ যদি কোন অভিযোগ না দেয় সেখানে করার কিছু নেই।’

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক সোমবার বিকেলে প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, ‘ঘটনা শুনে ছাত্রীর বাবার সাথে ফোনে কথা হলে তখনও তিনি মামলা দিতে চাইলেন। সে জন্য আটক যুবককে থানায় প্রেরণ করা হলো। এখন কি কারণে ছাত্রীর বাবা মামলা না দিয়ে সামাজিক বৈঠকের উদ্যোগে রাজি হলেন তা তিনিও বুঝতে পারছেন না বলে জানান।’

পিডিএসও/এসএম শামীম

 

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
স্কুলছাত্রী,শ্লীলতাহানি
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close