ব্রেকিং নিউজ

জুভেন্টাসের ড্রয়ের হ্যাটট্রিক

প্রকাশ : ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

ইতালিয়ান সিরি ‘আ’ লিগে হ্যাটট্রিক ড্রর স্বাদ পেল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস। পরশু রাতে হেলাস ভেরোনার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে জুভেন্টাস। লিগে আগের দুই ম্যাচে ক্রোটোন ও রোমার সঙ্গে ড্র করেছিল টানা ৯ বারের চ্যাম্পিয়নরা।

জয় দিয়ে এবারের লিগ পর্ব শুরু করেছিল জুভেন্টাস। কিন্তু এরপরই খেই হারিয়ে ফেলে চ্যাম্পিয়নরা। দ্বিতীয় ও তৃতীয় ড্র করে পয়েন্ট নষ্ট করে তারা। দুটি ম্যাচই ছিল প্রতিপক্ষের মাঠে। তাই জয়ের ধারায় ফিরতে আত্মবিশ্বাস পেয়েছিল জুভেন্টাস। কারণ লিগে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচটি জুভেন্টাসের মাঠেই ছিল। নিজেদের মাঠের সুবিধা নিয়ে জয়ের ধারায় ফেরার লক্ষ্য ছিল তাদের। কিন্তু এবারো জুভেন্টাসের আশায় পানি ঢেলে দেয় ভেরোনা।

আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে ম্যাচে প্রথম গোলের ভালো সুযোগ পেয়েছিল ভেরোনাই। ৭ মিনিটে ডেভিড ভারোনি মধ্য মাঠ থেকে বল নিয়ে জুভেন্টাসের সীমানায় প্রবেশ করেন। এরপর শটও নিয়েছিলেন গোলের উদ্দেশে। কিন্তু সেটি প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে বাইরে চলে যায়।

আর প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজার আগে প্রায় ৪০ গজ দূর থেকে জুভেন্টাসের গোলবার লক্ষ্য করে শট নিয়েছিলেন ভেরোনার এবরিমা কোলি। তার শট জুভেন্টাসের বারের ওপর দিয়ে চলে যায়।

তবে প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে গোল পায় জুভেন্টাস। আলভারো মোরাতার গোলও করেছিলেন। তবে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তায় অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল হয়ে যায়। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণের মধ্যে দিয়ে ম্যাচের প্রথমার্ধ শেষ হয়।

বিরতির পর গোলের আনন্দে মেতে ওঠে ভোরোনা। ৬০ মিনিটে সম্মিলিত আক্রমনে গোল পায় ভেরোনা। বাঁ দিক থেকে মিডফিল্ডার মাত্তেয়ো লোভাতোর পাস থেকে পেনাল্টি স্পটের কাছ বল পেয়ে জোরালো শটে জুভেন্টাসের জালে বলকে আশ্রয় দেন স্ট্রাইকার আন্দ্রেয়া ফাভিল্লি। গোল হজম করে হতাশায় নিমজ্জিত হয়ে পড়ে জুভেন্টাস। তবে ম্যাচে সমতা আনতে সময় ক্ষেপণ করতে হয়নি তাদের। ৭৭ মিনিটে মোরাতার পাসে বল নিয়ে একাই ভেরোনার বক্সে ঢুকে পড়েন দেজান কুলুসেভস্কি। বক্সের ভেতরে ঢুকে কোনাকুনি শটে গোল করেন ৬১ মিনিটে বদলি হিসেবে এই তরুণ মিডফিল্ডার। ফলে ম্যাচে ১-১ সমতা ফিরে। শেষ পর্যন্ত এই স্কোরেই ম্যাচটি শেষ হয়। আর পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়ে জুভেন্টাস ও ভেরোনা।

দ্বিতীয়বারের মতো করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসায় এ ম্যাচে মাঠে ছিলেন না দলের সবচেয়ে বড় তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তার না থাকাটা কতটা প্রভাব পড়েছে জুভেন্টাসের খেলায়, ফলাফল সেটিই বলছে। তবে ম্যাচে ৬২ শতাংশ বল দখলে রেখেও জিততে পারল না জুভেন্টাস।

 

"