reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ২৩ জুন, ২০২১

টিকা পেতে ধৈর্য ধরার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সমালোচকদের একটু ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্ব পরিস্থিতিটা বুঝতে হবে। প্রতিটি মানুষ যেন ভ্যাকসিন পায় তার ব্যবস্থা আমরা পর্যায়ক্রমিকভাবে নিচ্ছি এবং সেটা আমরা করবো, সবাই টিকা পাবেন।

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বুধবার বিকেলে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

সরকার আবার ভ্যাকসিন কিনতে শুরু করেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন,‌ ভারতে যখন মহামারি ব্যাপকভাবে শুরু হলো, তারা ভ্যাকসিন রফতানি বন্ধ করে দেয়াতে আমরা কিছুটা সমস্যায় পড়েছিলাম। আমরা এখন আবার ভ্যাকসিন কিনতে শুরু করেছি। দেশের প্রত্যেকটা মানুষের কাছে যেন ভ্যাকসিন পৌঁছে যায় আমরা পর্যায়ক্রমিকভাবে তার ব্যবস্থা নিচ্ছি এবং সেটাই আমরা করবো।

শেখ হাসিনা বলেন, করোনা ভাইরাস যখনই দেখা দিয়েছে ভ্যাকসিনের জন্য আমরা প্রতিটি জায়গায় যোগাযোগ করেছি। কোথায় ভ্যাকসিন পাওয়া যায়। বিশ্বের অনেক দেশ এখনও ভ্যাকসিন দিতে পারেনি। আমরা কিন্তু ভ্যাকসিন নিয়ে এসে দেয়াও শুরু করেছি।

দেশে ভ্যাকসিন উৎপাদন বিষয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ভ্যাকসিনের ওপর যেন আমাদের এখানে গবেষণা হয়, দেশে আমরা কাজ করতে পারি এবং আমরা যেন নিজেরা ভ্যাকসিন তৈরি করতে পারি, তার জন্য... কীভাবে ভ্যাকসিন তৈরি করবো তার জন্য এখানে ইনস্টিটিউট তৈরি করবো এবং এর গবেষণা করে ভবিষ্যতে আমরাও যেন ভ্যাকসিন তৈরি করতে পারি। তার জন্য যা যা দরকার আমরা সে ব্যবস্থা নেবো। সেধরনের পরিকল্পনাও আমরা নিয়েছি।

সমালোচকদের উদ্দেশ্যে সরকারপ্রধান বলেন, যারা সমালোচনা করে আমি বলবো একটু ধৈর্য ধরুন। দেখেন, আমরা কতটুকু কি করতে পারি। তার পর সমালোচনা করেন।

তিনি বলেন, বিশ্ব পরিস্থিতিটা বুঝতে হবে, যে ভ্যাকসিন আমরা চার ডলারে কিনেছি এখন তা ১৫ ডলারে কিনতে হচ্ছে। সামনে হয়তো আরও বেশি দাম হবে। আমরা তো আগেই টাকা দিয়ে, পয়সা দিয়ে সবকিছু করে রেখেছিলাম। কিন্তু এটা আন্তর্জাতিক বিষয়।

শেখ হাসিনা বলেন, দুঃখ লাগে যাদের আমরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগে ভাগে ভ্যাকসিন দিয়েছি তাদের দুই ডোজ নেয়ার পর তারাও এখন সমালোচনা করেন। অথচ তারাই কিন্তু সবার আগে নিয়েছে। তারাই আবার বড় বড় সমালোচনার কথা, একে গালি- ওকে গালি, অনেক কিছু দেন, আমরা শুনি।

এ সময় আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয় প্রান্তে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল-আলম হানিফ,
ড. হাছান মাহমুদসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগরের শীর্ষ নেতারা।

সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সঞ্চালনা করেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ।  সভায় ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বের চার দশক: সংগ্রামী নেতা থেকে কালজয়ী রাষ্ট্রনায়ক’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। বইটির সম্পাদনা করেন দলের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,করোনাভাইরাসের টিকা
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close