দুঃসময়ে আমার ছবি মানুষ দেখছে, এতেই আমি খুশি : হিরো আলাম

প্রকাশ : ১৭ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৩৪ | আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৪৪

অনলাইন ডেস্ক
‘সাহসী হিরো আলম’ ছবির একটি দৃশ্য

দীর্ঘ প্রায় সাত মাস পর শুক্রবার হিরো আলমের ‘সাহসী হিরো আলম’ ছবি দিয়ে সিনেমা হল খুলেছে। দর্শকদের প্রতিক্রিয়ায় খুশি হিরো আলম। তিনি মনে করেন, নতুন স্বাভাবিকে দর্শক যে টিকিট কেটে তার সিনেমা দেখছে, এটাই তার কাছে ছবি ‘সুপার হিট’ হওয়ার মতো। তার আর কোনো দুঃখ নেই। 

‘সাহসী হিরো আলম’ মুক্তি পেয়েছে দেশের ৫০টি প্রেক্ষাগৃহে। শুক্রবার পাঁচটি সিনেমা হল ঘুরেছেন ছবির প্রযোজক ও মূল অভিনেতা আলম। কথা বলেছেন দর্শকদের সঙ্গে। তাদের প্রতিক্রিয়া কেমন? হিরো আলম জানান, করোনার সময় সিনেমা হল পাবেন কি না, সেটা নিয়েই তিনি দুশ্চিন্তায় ছিলেন। সেখানে প্রত্যাশার চেয়ে বেশি সিনেমা হল পেয়েছেন তিনি। গতকাল সকাল থেকে তিনি প্রেক্ষাগৃহে ঘুরেছেন। জানালেন, তার ছবি দেখে দর্শক ভালো বলেছেন। তিনি বলেন, ‘প্রথম দিন দর্শক পেয়েছি, সেটাই লাখ শুকরিয়া। দুঃসময়ে আমার ছবি মানুষ দেখছে, এতেই আমি খুশি। কারণ, মানুষ এখনো জানেই না যে হল খুলেছে। সাত মাস পর সিনেমা হল খুলছে, সেখানে দর্শক আমার ছবি টিকিট কেটে দেখেছে, এটা তো ছবি সুপার-ডুপার হিট হওয়ার মতো ঘটনা। অনেকেই বলেছিল, মানুষ হিরো আলমের ছবি টিকিট কেটে দেখবে না। আমার ছবি নিয়ে অনেকে নিন্দা করত, নানা কথা বলেছিল।’

করোনায় গত ১৮ মার্চ থেকে দেশের প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ। নিয়ম মেনে সিনেমার শুটিং শুরু হলেও প্রযোজক, নির্মাতা, প্রদর্শকদের দাবি ছিল সিনেমা হল খোলা নিয়ে। পরে ১৪ অক্টোবর সিনেমা হল খোলার অনুমতি দেয় সরকার। ছবি না পেয়ে এ সময় কিছু হল পুরোনো ছবি দিয়ে হল চালু করে। হিরো আলম তার নতুন ছবি মুক্তি দেন ৫০টি হলে। তার ছবি মুক্তি নিয়ে কে কী বলেছে, তা জানতে চাইলে হিরো আলম কিছুক্ষণ চুপ ছিলেন। তার গলার স্বর কিছুটা নেমে যায়। দুঃখভারাক্রান্ত কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘কী আর বলব ভাই, কত মানুষ আমাকে মুখের ওপর বলেছে, আপনি ছবি বানাতে পারবেন না, আপনার ছবি হলে চলবে না, চললেও কেউ দেখবে না। এসব শুনে কষ্ট পেয়েছিলাম। আজ আমি খুশি, আমার কোনো দুঃখ নেই। আমার ছবি হলে চলছে। এক টাকা ব্যবসা করলেও সেটা আমার কাছে লাখ টাকা।’ তিনি বিশ্বাস করেন, মানুষ এক দিনে বড় হতে পারে না। তিনি তার মতো করে চেষ্টা করবেন ভালো ছবি বানাতে। যারা বলেছিল হিরো আলমের ছবি ভালো না, তাদের উদ্দেশে আলম বলেন, ‘যারা ভালো বলছে না, তারা সিনেমা দেখেনি, তারা নিন্দুক। তারা ইউটিউব ঘাঁটাঘাঁটি করে মন্তব্য করে। আমি হিরো আলম বলছি, আপনি অনেক দিন ছবি দেখেন না। আমার ছবি হলে এসে দেখে বলুন কোন দিক দিয়ে খারাপ।’