ওসি প্রদীপসহ ৭ পুলিশ বরখাস্ত

প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০২০, ২২:৩৬ | আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০২০, ০০:৩০

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, কক্সবাজার

সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খানের মৃত্যুর ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ ও উপপরিদর্শক (এসআই) লিয়াকতসহ ৭ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন। 

তিনি বলেন, ‘মেজর (অব.) সিনহা হত্যা মামলার আসামি ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও এসআই লিয়াকত আলীকে পুলিশ সদর দফতর থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। অন্য আসামি এসআই নন্দলাল রক্ষিত, কনস্টেবল সাফানুর করিম, কনস্টেবল কামাল হোসেন, কনস্টেবল আবদুল্লাহ আল মামুন ও এএসআই লিটন মিয়াকে জেলা পুলিশ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।’

সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় টেকনাফ থানার প্রত্যাহার হওয়া বহুল আলোচিত ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ পুলিশের ৭ সদস্যকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ওসি প্রদীপসহ ৭ পুলিশ সদস্যকে কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। ৭ আসামির আত্মসমর্পণের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিচারক মো. হেলাল উদ্দিন জামিন নাকচ করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

পরে র‌্যাব ৭ পুলিশ সদস্যকে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে একই আদালতে আবেদন করলে বিচারক ওসি প্রদীপ কুমার দাস, পরিদর্শক লিয়াকত আলী ও এসআই নন্দলাল রক্ষিতকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমাঞ্জ মঞ্জুর করেন।

প্রসঙ্গত, কক্সবাজারের টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর পুলিশ তল্লাশি চৌকিতে গত ৩১ জুলাই রাতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান। এ ঘটনার বিচার চেয়ে গতকাল বুধবার কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন নিহত সিনহা মো. রাশেদ খানের বড় বোন শারমিন।