ময়নাতদন্ত রিপোর্টে জানা গেল ভিকটিম ধর্ষিত

ধর্ষক প্রেমিক গ্রেপ্তার

প্রকাশ : ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১০:৪১

​গাজীপুর প্রতিনিধি
ছবি : প্রতীকী

গাজীপুরের টঙ্গীতে এক গৃহকর্মী (১৮) আত্মহত্যার পর ময়নাতদন্ত রিপোর্টে জানা গেল ভিকটিম ধর্ষিত। আত্মহত্যার ১০ মাস ২২ দিন পর ভিকটিমের ধর্ষক প্রেমিক হাবিবুর রহমান হাবিবকে (২২) গ্রেপ্তার করেছে গাজীপুর মেট্টো পলিটন পুলিশ। 

মঙ্গলবার হাবিব আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। গাজীপুর মেট্টো পলিটন পুলিশের ডিসি (ডিবি উত্তর, মিডিয়া) জাকির হাসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

হাবিবুর রহমান হাবিব হবিগঞ্জের মাধবপুর পুড়াইখলা নূরুল ইসলামের ছেলে। ভিকটিমের বাড়ি একই জেলার একই থানা এলাকায়।

ডিসি (ডিবি উত্তর, মিডিয়া) জাকির হাসান মঙ্গলবার রাতে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ভিকটিম গাজীপুর সিটি করপোরেশনের টঙ্গী পূর্ব থানাধীন মধ্যআরিচপুর এলাকার জনৈক মোশারাফ হোসেনের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতেন। ওই বাসার পাশেই হোটেলে বাবুর্চির কাজ করতেন হাবিব। পাশাপাশি বাসায় থাকায় তাদের দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

এদিকে চলতি বছরের ৩ জানুয়ারি রাতে ভিকটিম তার থাকার ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন। পরদিন খবর পেয়ে পুলিশ কক্ষের দরজা ভেঙে ভিকটিমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ভিকটিমের পিতা দ্বীন ইসলাম এ ব্যাপারে থানায় অপমৃত্যু মামলা করেন। প্রথমে বিষয়টি আত্মহত্যার বিষয় হওয়ায় থানা পুলিশ মৃতের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্ততপূর্বক মৃত্যুর সঠিক কারণ জানার জন্য লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায়।

তিনি জানান, ভিকটিম যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে মর্মে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট আসে। পরে বিয়ষটি গাজীপুর মেট্রো পলিটন পুলিশ কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবিরকে অবগত করা হয়। পুলিশ কমিশনারের নির্দেশে ও ভিকটিমের বাবার সহয়তায় গত সোমবার (২৬ অক্টোবর) হাবিবকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জাকির হাসান আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি হাবিব ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন, ভিকটিমের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল এবং বিভিন্ন জায়গায় বেড়াতে (ঘুরতে) যেতেন। তিনি ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ মেলামেশা করেছিলেন। ভিকটিম যেদিন আত্মহত্যা করেছেন, সেদিনেও তার সাথে ভিকটিমের শারীরিক সম্পর্ক হয়েছিল। পরে ভিকটিমের সাথে মোবাইলে কথা বলার সময় কথা কাটাকাটি ও গালিগালাজ করার কিছুক্ষণ পরই আত্মহত্যা করেন।

তিনি জানান, এ ব্যাপারে টঙ্গী পূর্ব থানার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। আসামি হাবিব আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

পিডিএসও/হেলাল