নীলফামারী প্রতিনিধি

  ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২২

তিস্তা ব্যারেজ সেচ প্রকল্প সংস্কার ও রং করা হচ্ছে

তিস্তা ব্যারেজ সেচ প্রকল্পটি রোদ, বৃষ্টি, ঝড় ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে তিস্তা ব্যারেজ সেচ প্রকল্পের অপারেশন ডেকের জলকপটে মরিচা ধরে লেকাল মুড, অটোমুড, ওয়ার রোপ ও বৈদ্যুতিক মটরের সিংহভাগ যন্ত্রাংশই ধারণক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে। এ নিয়ে তিস্তা ব্যারেজ সেচ প্রকল্পটি সচল রাখতে সংশ্লিষ্ট যাত্রিক বিভাগ চ্যালেঞ্জিং মুখে পড়ে। বর্তমানে সেগুলো রং এবং মেরামত করে সচল করা হচ্ছে।

২০২১ সালে যান্ত্রিক বিভাগ অপারেশন ডেকের যন্ত্রাংশ পূর্নস্থাপন ও সংস্কার মেরামতের জন্য বরাদ্দ চেয়ে চিঠি দেয় পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ে। ২০২১ সালের ৩০ জুন জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি ‘একনেকর’ বৈঠকে উন্নয়ন রাজস্ব খাতের আওতায় ‘তিস্তা সেচ প্রকল্পের কমান্ড এলাকার পুনর্বাসন সম্প্রসারণ’ শীর্ষক প্রকল্পের অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ প্রকল্পের আওতায় জরুরী ওয়ার্ক অডারের অনুমোদন পেয়ে নীলফামারী’র ডিমলা ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের যান্ত্রিক বিভাগ রং করণের কাজের দরপত্র ও অপারেশন ডেকের যন্ত্রাংশ পূর্নস্থাপনের আহবান করে। এই ২টি দরপত্রের প্রতিযোগিতায় মেসার্স ইউনাইটেড ব্রাদাস লিমিটেড ও শাহ এন্ড এসোস্যুয়েট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ প্রদান করে। এ প্রকল্পের কাজ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের বিভিন্ন সময় পরির্দশন ও সিডিউল অনুযায়ী চীন থেকে আমদানীকৃত যন্ত্রাংশ ও ক্ষয়প্রতিরোধী এপোক্সি পেইন্টিয়ের গুণগতমান যাছাইসহ সার্বক্ষণিক তদারকির ফলে চ্যালেজিং প্রকল্পটির কাজ যথাসময়ে বাস্তবায়িত হবে।

এ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন, নীলফামারী’র ডিমলা ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রুবাইয়েত ইমতিয়াজ। তিনি সাংবাদিকদের জানান, তিস্তা ব্যারেজ সেচ প্রকল্পের এ চ্যালেজিং কাজের গুগতমান ও সৌন্দর্যের ভারসাম্য রক্ষার স্বার্থে ব্যারেজের কনক্রিট স্থাপনা ও স্টীল রেলিংসহ কন্ট্রোল বিল্ডিং রং করা হয়েছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
তিস্তা ব্যারেজ,সেচ প্রকল্প,নীলফামারী
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close