প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ২৬ নভেম্বর, ২০২১

নির্বাচনী সহিংসতা

সংঘর্ষ হামলা আগুন নবীনগরে নিহত ১

বগুড়া সদরের নুনগোলা ইউনিয়নে, সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে, পাবনার সাঁথিয়ায়, যশোরের শার্শার লক্ষণপুরে ও জামালপুরের মেলান্দহে হামলা, সংঘর্ষ ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া রাজশাহীর চারঘাটের সরদহ ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দ্বী দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী পরস্পরের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে রতনপুর ইউনিয়নে নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থক যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো রিপোর্ট-

বগুড়া : বগুড়া সদরের নুনগোলা ইউনিয়নে দাঁড়িয়াল বাজার এলাকায় গত বুধবার রাত ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে দুজন ছুরিকাহতসহ ৬ জন আহত হয়েছেন। ছুরিকাহতরা হলেন গফুর (৪৮) ও জিয়া (৪০)। ওই সময় দাঁড়িয়াল গ্রামের নৌকা মার্কার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করা হয়। আহতদের উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় একটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ এবং ১৫/১৬টি ভাঙচুর হয়েছে বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে রাতেই সদর সার্কেল (ভারপ্রাপ্ত) সহকারী পুলিশ সুপার তানভীর হাসানসহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পশ্চিম পাইকাড়া নামক এলাকায় রাতের আঁধারে নৌকার নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ওই ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী আবুল হোসেন পাড় জানান, বিএনপি-জামায়াতের নাশকতা মামলার আসামিরা জামিনে মুক্ত হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমানের পক্ষ নিয়ে নৌকার কর্মী-সমর্থকদের হুমকি-ধামকি প্রদান করে আসছেন। তারা রাতের আঁধারে নৌকার নির্বাচনী অফিস এবং বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি পুড়িয়ে দেয়। এ ঘটনায় তিনি মামলার প্রস্তুতিও নিচ্ছেন বলেও জানান।

তবে নলতা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্রপ্রার্থী আজিজুর রহমান বলেন, আমাদের ফাঁসাতে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা পরিকল্পিতভাবে জঘন্য কাজটি করেছেন। নৌকার বাইরে কাউকে ভোট দেওয়া যাবে না বলে তারাই হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছেন।

বেড়া-সাঁথিয়া (পাবনা) : পাবনার সাঁথিয়া উপজেলায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সঙ্গে নৌকার সমর্থকদের সংঘাত বেড়েই চলছে। গত বুধবার উপজেলার গৌরীগ্রাম ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবদুল্লাহ আল-মামুন বাবুর ওপর আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া মার্কা প্রতীকের মাহবুল আলম বিকুর সমর্থকরা হামলা চালায়। ১৭ নভেম্বর গভীর রাতে উপজেলার নাগডেমরা ইউনিয়নের বাটু সোনাতলায় নির্বাচনী প্রচারণার জন্য ঝুলিয়ে রাখা নৌকায় আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। এর আগে গত সোমবার সন্ধ্যার পর ওই ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস) হাফিজুর রহমান হাফিজের নির্বাচনী অফিসে হামলার অভিযোগ করেন আনারসের প্রার্থী। ওই সময় উভয় পক্ষের সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়। উভয় পক্ষ থানায় মামলা করলে ৬ জনকে আটক করে পুলিশ।

এছাড়াও ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়ন নির্বাচনে নৌকার অফিসে হামলার অভিযোগ করেছেন নৌকা মার্কা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মুনসুর আলম পিনচু। এদিকে নৌকা প্রার্থীর কর্মীদের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচার মাইকের তার ছিড়ে ফেলা ও মারধরের অভিযোগ করেছে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল গফুর। গত মঙ্গলবার খালইভরা স্লুইসগেটের সামনে নৌকা প্রতীকের অফিসে মারধরের ঘটনা ঘটে।

এছাড়াও মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) রাত ৯টার দিকে ধোপাদহ ইউনিয়নের নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী সাইদুজ্জামান বাবলুর মিছিলে হলুদঘর বাজার এলাকায় ককটেল নিক্ষেপের অভিযোগ রয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু সাইদ বিশ্বাসের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে। সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিফ মোহামাদ সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।

বেনাপোল : যশোরের শার্শা উপজেলায় লক্ষণপুর ইউনিয়নের নৌকার কর্মীরা স্বতন্ত্র প্রার্থী শামছুর রহমানের তিনকর্মীকে কুপিয়ে জখম করেছে। গত বুধবার রাত ১টার দিকে ইউনিয়নের কলোনীপাড়া (মান্দারতলা) এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী শাহীন কাদির (২৭), তোতা মিয়া (৪৩), ওমর ফারুক (৩৩)। এদের মধ্যে ওমর ফারুকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মেলান্দহ (জামালপুর) : জামালপুরের মেলান্দহে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ইউপি সদস্যের এক প্রার্থীর কর্মীর বাড়িতে আগুন দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মেলান্দহ থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। গত বুধবার রাত আনুমানিক ১টার দিকে উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড বানিয়াবাড়ী এলাকার মো. দুলাল মিয়ার বাড়িতে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) : জেলার নবীনগর উপজেলার রতনপুর ইউনিয়নে খাগাতুয়া গ্রামে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকরা বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থক যুবলীগ নেতাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হাত-পায়ের রগ কেটে হত্যা হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে।

চারঘাট (রাজশাহী) : জেলার চারঘাট উপজেলায় ছয়টি ইউনিয়নের মধ্যে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ রয়েছে সরদহ ইউনিয়নের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে। এরা হলেন আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাওয়া বর্তমান চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান মধু ও ওয়ার্কার্স পার্টি থেকে মনোনয়ন পাওয়া সাবেক চেয়ারম্যান মতিউর রহমান তপন। প্রতীক বরাদ্দের আগেই তারা প্রচারণায় উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে চলেছেন বলে অভিযোগ।

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সরদহ ইউনিয়নের সভাপতি ইমদাদুল হক বলেন, ‘এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা নির্বাচনী আচরণবিধি লক্ষণ করে প্রচারণা চালাচ্ছেন। এটা দুঃখজনক।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম বলেন, ‘প্রতীক বরাদ্দের আগে নির্বাচনী প্রচার করা আচরণবিধির লঙ্ঘন। অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close