অনলাইন ডেস্ক
  ২৪ নভেম্বর, ২০২০

যে কারণে মেয়েরা ছেলেদের ঠকায়

যে কোনও সম্পর্কেই ঝগড়া, ভাঙন এসব থাকেই। থাকে ওঠাপড়া, ভুলবোঝাবুঝি। কিন্তু এসবের পরও প্রতারিত হতে হয়। মানুষ চেনা এমনই কঠিন কাজ। কেউ সারাজীবনে চিনতে পারেন না, আবার কেউ পাঁচ বছরেও চিনতে পারেন না। বদলে যাওয়া মানুষের স্বভাব। আর তাই প্রেম থেকে বিয়ে সম্পর্কে ধোঁকা দেওয়ার রীতি এখনও রয়েছে। স্বামী যেমন স্ত্রীকে ঠকায় তেমনই প্রেমিককে ঠকায় প্রেমিকা। যে কোনও সম্পর্কের ভিত্তি হল বিশ্বাস। কিন্তু এখনকার সম্পর্কে সেই বিশ্বাস অনেকখানি জায়গা হারিয়েছে। সবাই নিজের স্বার্থটুকু বুঝে নিতে চান। ফলে এই ঠকানোর ট্রেন্ডও চলে আসছে যুগের পর যুগ। যদিও এই ঠকানোর ব্যাপারে ছেলেরা অনেকটাই এগিয়ে, তবুও মেয়েরা খুব একটা পিছিয়ে নেই। তবে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার ক্ষেত্রে কিছুসময় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কারণ থাকে মেয়েদের হাতে। আবার অনেক সময় স্রেফ ভালোলাগছে না বলেও অনেকে বেরিয়ে আসেন। কিন্তু কখন মেয়েরা ঠকায়? জানুন

নতুন সঙ্গীর খোঁজে

ইদানিং অনেক মেয়েই আছেন, যারা একজন সঙ্গীতে খুশি হতে পারেন না। বলা যায় খুব বেশিদিন কোনও একজনকে তাদের ভালো লাগে না। কিছুদিন যেতে না যেতেই তাদের সবকিছু একঘেঁয়ে লাগতে শুরু করে। সেখান থেকে বেরিয়ে আসার রাস্তা খোঁজেন। একটি সম্পর্কে থাকতে থাকতেই তারা অন্য সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। খুব বেশি ২ বছর তারা একটি সম্পর্কে থাকতে পারেন। তারপর নানা সমস্যার দোহাই দিয়ে সেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসেন। বলা ভালো সঙ্গীকে ঠকিয়ে নতুন সঙ্গী খুঁজে নেওয়াই এদের উদ্দেশ্য।

যথাযোগ্য ভালোবাসা না পেলে

অনেক ছেলেই আছেন যারা বছর দুই প্রেমের পরই প্রেমিকাকে টেকেন ফর গ্রান্টেড নিয়ে নেন। সময়ে ফোন করা কিংবা খোঁজ নেওয়া এসব তাদের মধ্যে থাকে না। এমনকী প্রেমিকাকে সময় না দিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে সময় দিতেই ভালোবাসেন। স্ত্রী কিংবা প্রেমিকা ছাড়া বন্ধুরাই তাদের কাছি দামি। কিন্তু কখনই এই সত্যিটা তারা স্বীকার করতে চান না। এমনকী স্ত্রী বা প্রেমিকাকে আর পাঁচজনের মতোই তারা দেখেন। আলাদা করে খেতে, ঘুরতে যেতে চান না। এরকম ক্ষেত্রে বেশ কিছুবার বলার পর মেয়েরা চুপচাপ সেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে বাধ্য হন। এবং নিজের শূন্যতা পূরণ করতে অন্য কোনও সঙ্গী খুঁজে নেন।

প্রতিশোধ নিতে

অনেকের মধ্যেই মারাত্মক প্রতিশোধ স্পৃহা থাকে। যদি মেয়েটিকে আগে কেউ ঠকিয়ে থাকে সেই মানসিক যন্ত্রণা থেকেই তার মধ্যে প্রতিশোধ স্পৃহা জেগে ওঠে। এমনকী তখন ঠান্ডা মাথায় পুরোটা পরিকল্পনা করে এই প্রতিশোধের চেষ্টা করে। এসব ক্ষেত্রে মেয়েটির মনে কিন্তু কোনও আবেগ থাকে না। পুরোটাই থাকে দেখানো। বিশ্বাসঘাতকতার প্রতিশোধ অনেকেই এভাবে নিয়ে থাকেন।

সম্পর্কে সুখী না হলে

একটি সম্পর্কে উভয়েরই সুখী হওয়া প্রয়োজন। শারীরিক ও মানসিক দুদিক থেকেই। কথায় কথায় ঝগড়া, অশান্তি, ঝামেলা এসব কেউই পছন্দ করে না। মনে হয় আশপাশের সবাই অনেক সুখী। নিজেদের মধ্যে কোনও সুখ নেই। সেসব ক্ষেত্রে মনে হয় বেকার সময় নষ্ট করার কোনও অর্থ নেই। সব থাকা সত্ত্বেও কীসের যেন অভাবে সম্পর্কে একটা টানহীন ভাব অনুভূত হতে থাকে। এইরকম অবস্থায় মেয়েরা বেশিদিন মানিয়ে চলতে পারে না। তখনই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চায়। সূত্র : এইসময়

পিডিএসও/ জিজাক

ছেলেদের ঠকায়,মেয়ে
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়