সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি

  ২৪ এপ্রিল, ২০২৪

সৈয়দপুরে অভিযোগ

প্রচন্ড তাপমাত্রায় স্কুল-কলেজ বন্ধ, চলছে কোচিং সেন্টার 

ছবি: প্রতিদিনের সংবাদ

প্রচন্ড গরমে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষায় সরকার স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করলেও নীলফামারীর সৈয়দপুরে চলছে কোচিং সেন্টার। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান স্থানীয় বাসিন্দা ও অভিভাবকরা। বুধবার (২৪ এপ্রিল) শহরের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় কোচিং সেন্টার খোলা রাখার চিত্র চোখে পড়ে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, কোচিং সেন্টারে শিক্ষার্থীরা গাদাগাদি করে বসে আছে। অনেকের শরীর থেকে ঝরছে ঘাম। অনেক অভিভাবক বলছেন, এই প্রচন্ড গরমে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখলে ভালো হতো। কোচিং সেন্টার খোলা থাকায় শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে না থেকে কোচিং সেন্টারে ছুটছে।

কোচিং সেন্টারে পড়তে আসা অনেক শিক্ষার্থী বলছেন, গরমে বাসা থেকে বের হতে ইচ্ছা করে না। এরপরও মেধার বিকাশ করতেই যেতে হচ্ছে। এমনিতেই প্রচন্ড গরম এরপর কোচিং সেন্টারে গাদাগাদি করে বসতে হচ্ছে। স্যারেরা যদি কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখতেন, তাহলে খুব ভালো হতো। আবার কেউ কেউ বলছেন, স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় বাড়িতে পড়ে অনেক কিছুই বুঝতে পারছি না। কোচিংয়ের কারণে পড়াশোনা অনেকটা এগিয়ে গেছে। স্কুল কলেজ খোলার সঙ্গে সঙ্গে পরীক্ষা। কোচিং সেন্টারে পড়াশোনা না করলে পরীক্ষায় লিখতে পারবে না তারা।

গরমে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকলেও কোচিং সেন্টার কেন খোলা রেখেছেন জানতে চাইলে সৈয়দপুর শহরের ডাক বাংলা সংলগ্ন কোচিং সেন্টারের শিক্ষক জাবেদ আকতারি জানান, সৈয়দপুরে অনেকেই তো কোচিং সেন্টার খোলা রেখেছেন। গরমে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখতে হবে তা জানা ছিল না। তা ছাড়া মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামের সঙ্গে তার ভালো সম্পর্ক। সবাইকে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দিলে তিনিও বন্ধ রাখবেন। তবে স্কুল কলেজ বন্ধ রাখার সঙ্গে সঙ্গে যদি কোচিং সেন্টারও বন্ধ থাকে তাহলে শিক্ষার্থীরা ক্ষতির সম্মুখীন হবেই বলে জানান তিনি।

সৈয়দপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, শিক্ষার্থীদের স্বার্থে প্রচন্ড গরমের দিনগুলোতে সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার দাবি জানান তিনি। এরপরেও যদি কেউ কোচিং সেন্টার খোলা রাখেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

পিডিএস/আরডি

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
নীলফামারী,সৈয়দপুর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close