সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

  ০৪ এপ্রিল, ২০২৪

সিরাজগঞ্জ 

ঈদকে সামনে রেখে ব্যস্ততা বেড়েছে দর্জি পাড়ায় 

ছবি: প্রতিদিনের সংবাদ

সিরাজগঞ্জে ঈদকে সামনে রেখে কেনা নতুন পোষাক তৈরিতে দর্জিপাড়ায় ব্যস্ত সময় পার করছে দর্জি ও কাপড় বিক্রেতারা। পোষাক তৈরির জন্য এখন দিন-রাত ব্যস্ততা জেলার সকল দর্জি দোকানে। ইতিমধ্যে অনেক দোকান তাদের নতুন অর্ডার নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন।

সরেজমিনে সিরাজগঞ্জ শহরে দেখা গেছে, গ্রাহকের পছন্দের সঙ্গে তাল মেলাতে ব্যস্ত নারী-পুরুষ পোষাক কারিগররা। সময় আর আধুনিকতা এসবের সঙ্গে তাল মিলিয়েই নিত্য নতুন পোষাক তৈরিতেই এখন তাদের মনোযোগ। কখনও সালোয়ার কামিজ বা কখনো পায়জামা-পাঞ্জাবি তৈরিতে মেশিনে অবিরত চলছে।

শহরে এবি সুপার মার্কেটের ইউনিক টেইলার্সের কারিগর হালিম জানান, এবারের ঈদে মার্কেট এতো বেশ জমজমাট হয়ে উঠেছে। তাই আমাদের ব্যস্ততাও বেড়েছে। আমাদের আয়ের একটা বড় অংশ পাই ঈদের পোষাক তৈরি করে। ঈদে এবার মানুষ অনেক কাপড় তৈরি করতে দিচ্ছে। আশা করছি এবার ঈদ আমাদের ভালোই কাটবে।

শহরের মাছুমপুরের বছির পাঞ্জাবী টেইলার্সে মালিক জানান, এবার অর্ডার ভালো পাচ্ছে। কাজের চাপে কাজের চাপে ইতিমধ্যেই অর্ডার নেওয়া বন্ধ করেছি। কর্মচারীরা প্রতিদিন ৩০-৩২টি কাপড় সেলাই করছে। এখন প্রতিদিন একজন শ্রমিক ৮০০ থেকে এক হাজার টাকা মজুরি পাচ্ছে।

নারী দর্জি আফরোজা জানান, এখন প্রত্যেক দিনই অর্ডার পা”িছ। বেশি তৈরি করছি মেয়েদের সালোয়ার কুর্তি আর ছেলেদের কাবলি। ঈদের আগে ভীড় বেশি হয় তাই অতিরিক্ত নারী ও পুরুষ কারিগর নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তবে এবার অর্ডার এতো বেশি যা ভাবতেও পারিনি।

এদিকে কাপড় বানাতে আশা কোহিনুর জানান দোকানে ভীড় বেশ থাকায় আগেই আমার কাপড় বানাতে দিয়েছি। শ্রমিকরা জানায় কাজের চাপ বেশী থাকায় সারা রাত জেগে কাজ করতে হচ্ছে।

পিডিএস/এস

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ব্যস্ততা বেড়েছে দর্জিপাড়ায়,সিরাজগঞ্জ
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close