বেড়া-সাঁথিয়া (পাবনা) প্রতিনিধি

  ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

বেড়ায় পূজামণ্ডপে অপ্রীতিকর ঘটনা

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

পাবনা বেড়া পৌর এলাকার একটি সরস্বতী পূজামণ্ডপে গান বাজানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে মাটিতে প্রতিমা ফেলে দেওয়া এবং পূজামণ্ডপে থাকা দুই নারীসহ তিনজনকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে বনগ্রাম রাজবংশী কালীমন্দিরে এ ঘটনাটি ঘটে।

ঘটনাস্থলে থাকা বেড়া মডেল থানার পরিদর্শক সিদ্দিকুল ইসলাম প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, বনগ্রাম রাজবংশী কালীমন্দিরে (১৪ ফেব্রুয়ারি) সরস্বতী পূজার আয়োজন করা হয়। সাউন্ডবক্সে গান বাজানোর সময় বিকাল ৪টা ৫০ মিনিটের দিকে স্থানীয় বনগ্রাম উত্তর মহল্লার মৃত আয়নাল হকের ছেলে গৌরব হোসেন (১৮) ও সওদাগর পাড়ার তোতা ব্যাপারীর ছেলে মো. বিশাল (১৯) মণ্ডপে এসে গান বাজাতে নিষেধ করেন। এতে মণ্ডপে থাকা পূজার সঙ্গে জড়িতরা সাউন্ড অনেকটাই কমিয়ে দেন। কিন্তু এতেও সন্তুষ্ট না হয়ে সাউন্ডবক্সটি বন্ধ করে দিতে বলেন তারা। এ নিয়ে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে ওই দুই তরুণ মণ্ডপে থাকা লিটন দাস (২৬), তার বোন সাথী দাস (২৩) ও পূজা দেখতে আসা স্বর্ণা রাজবংশীকে (১৯) মারধর করেন। এরই এক পর্যায়ে মণ্ডপে থাকা সরস্বতী প্রতিমাকে মাটিতে উল্টে পড়ে থাকতে দেখা যায়। এ সময় এলাকার লোকজন এগিয়ে এলে গৌরব ও বিশাল সেখান থেকে চলে যান।

এদিকে এ ঘটনার পর পরই বেড়া থানা পুলিশ ও উপজেলার পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। সান্ধায় পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম ও বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোরশেদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই তরুণকে দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দেন।

এ ব্যাপারে বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশিদুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনা শোনার সঙ্গে সঙ্গে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। প্রতিমা মাটিতে কারা ফেলেছে তা কেউই বলতে পারছেন না। তবে এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। আর মারধরের ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই তরুণকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
অপ্রীতিকর ঘটনা,পূজামণ্ডপ,বেড়া
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close