কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি

  ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

গড়াই নদী

কুমারখালীতে সেতুর টোল মওকুফের দাবি

রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের গড়াই নদীর সৈয়দ মাসুদ রুমী সেতুর টোল বন্ধের দাবিতে মঙ্গলবার করা মানববন্ধন। ছবি: প্রতিদিনের সংবাদ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে গড়াই নদীতে নির্মিত সৈয়দ মাসুদ রুমী সেতুতে যানবহন পারাপারে সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের টোল মওকুফের দাবি করেছেন চালকসহ স্থানীয় বাসিন্দারা। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সেতুর টোল প্লাজা এলাকায় মানববন্ধনের আয়োজন করে তারা। জেলা প্রশাসক এবং সওজ কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের লাহিনীপাড়ায় অবস্থিত সেতুটি। এতে টোল মুক্ত করার দাবিতে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করে আওয়ামী লীগ নেতাসহ স্থানীয় শতাধিক লোকজন।

ছাত্রলীগের সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া খান জেমসের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আসাদুর রহমান আশা, কুমারখালী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাকসহ অন্যরা।

বক্তারা জানান, ২০০৪ সালে ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি আঞ্চলিক মহাসড়কের গড়াই নদীর ওপর নির্মিত হয় সৈয়দ মাছ-উদ্দীন রুমি সেতু। ২০০৫ সাল থেকে এই সেতু ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে ইজারাদারের মাধ্যমে টোল আদায় করে আসছে সওজ বিভাগ। ইতিমধ্যে সেতুর নির্মাণ ব্যয়ের কয়েক গুণ টাকা উঠে গেলেও টোল আদায় বন্ধ হয়নি বলে দাবি আন্দোলনকারীদের।

জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক এহতেশাম রেজা বলেন, গড়াই নদীর ওপর সড়ক ও জনপদ বিভাগের যে সেতু রয়েছে, সেটি পারাপারের ক্ষেত্রে পায়ে চালিত রিকশা-ভ্যান ও সাইকেলের ওপর স্থানীয়ভাবে টোল মওকুফের জন্য আমাকে স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে। এটি যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচরে আমি আনব। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য শিগগিরই প্রেরণ করব।

পিডিএস/এস

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কুষ্টিয়ার কুমারখালী,গড়াই নদী
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close