চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

  ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

মৃত্যু শঙ্কায় চিকিৎসাধীন সেই ব্যবসায়ী, গ্রেপ্তার হয়নি কেউ 

ছবি: প্রতীকি

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ছুরির আঘাতে ক্ষতবিক্ষত হয়ে চিকিৎসাধীন মাংস ব্যবসায়ী রেজাউল করিমের মৃত্যু শঙ্কা কাটেনি। মাংস ব্যবসায়ী রেজাউল করিমের স্ত্রী রাজভানু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনায় মামলা করেছেন তিনি। ভুক্তভোগী মাংস ব্যবসায়ী উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের হাটিথানা এলাকার বাসিন্দা।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, গত ৭ ফেব্রুয়ারী রাতে মামলার ৪ নম্বর আসামি নিরাশা ব্যাপারী কৌশলে ব্রহ্মপুত্র নদের ধারে মাংস ব্যবসায়ী রেজাউল করিমকে ডাকেন। এ সময় ওৎ পেতে থাকা মামলার আসামী মেরাজুল হক (৪৮), গোলাপী বেগম (৩৭), সিরাজুল হক (৩৬)সহ আরো ৩-৪ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি দেশিয় অস্ত্র দিয়ে উর্পযুপরি আঘাত করেন তাকে। ওই ব্যবসায়ীর কাছে থাকা সাড়ে ৫ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেওয়াও অভিযোগ আনা হয়। এ সময় ওই মাংস ব্যবসায়ী রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়িতে দৌড়ে আসেন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় মাংস ব্যবসায়ী রেজাউল করিমকে চিলমারী হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

এদিকে রেজাউল করিমের স্ত্রী রাজভানু বেগম (৪২) পূর্ব শত্রুতার জেরে তার স্বামীকে ডেকে নিয়ে হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে বলে গত ১১ ফেব্রুয়ারি থানায় মামলা করেছেন। তবে মামলা হলেও আসামীরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন।

স্ত্রী রাজভানু জানান, আগের থেকে কিছুটা উন্নতি হলেও ডাক্তারের ভাষ্যমতে তিনি এখনো শঙ্কা মুক্ত নন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মাহবুবুর রশিদ বিপ্লব বলেন, এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পরিবার থানায় মামলা দায়ের করলেও রেজাউলকে মারধরের সঠিক কারণটি তিনি এখনো জানেন না।

চিলমারী মডেল থানার ওসি মোজাম্মেল হক জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

পিডিএস/এস

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কুড়িগ্রামের চিলমারী,চিকিৎসাধীন মাংস ব্যবসায়ী
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close