সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি

  ০৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

টানা দুইদিনের বৃষ্টিতে ৫০ ইটভাটার ক্ষতি 

ছবি: প্রতিদিনের সংবাদ

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখানে টানা দুই দিনের বৃষ্টিতে প্রায় ৫০টি ইটভাটার অধিকাংশের কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে। এতে অন্তত ৫-৭ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন ইটভাটার মালিকরা। গত বুধবার থেকে বৃহস্পতিবার টানা বৃষ্টিতে উপজেলার বালুরচর, লতব্দী, বাসাইল, ও কেয়াইন ইউনিয়নের এসব ইটভাটার কাঁচা ইটগুলো পানিতে ভিজে কাদা হয়ে যায়। এতে বড় ধরনের লোকসানের মুখে পড়েছেন তারা।

মোল্লা ব্রিকসের মালিক মো.নাজমুল মোল্লা বলেন, ঘূর্ণিঝড় মিগজাউম বৃষ্টিতে আমার ৩ লক্ষাধিক কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে। ক্ষতির পরিমাণ ১০ লাখ টাকা।

বালুচর ইউনিয়নের চরপানিয়া এলাকার মিসমিল্লাহ ব্রিকসের মালিক মো. কোরবান আলী জানান, তার ২ লক্ষাধিক কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে এতে ৬ লাখ টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে। এ লোকসান পুষিয়ে ওঠা সম্ভব নয় বলেও জানান।

মেসার্স ন্যাশনাল ব্রিকস ম্যানুফ্যাকচারিং কোং এর মালিক মো. বরকত উল্লাহ জানান, উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের ইসলামপুর ও গুডাউন বাজার এলাকায় আমার দুটি ইটভাটায় প্রায় ৬ লক্ষাধিক কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে। যা লোকসানের পরিমান প্রায় ১৫ লক্ষাধিক টাকা।

সিরাজদীখানে উপজেলার ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান এ বিষয়ে বলেন, ঘূর্ণিঝড় মিগজাউম সিরাজদীখানে অনেক ইটভাটারই কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে। বৃষ্টিতে অনেক ইটভাটার আগুন নিভে গেছে। আমাদের সমিতির আন্ডারে প্রায় ৪৫ টি ইটভাটা রয়েছে। সমিতির বাহিরেও আরো ৫-৭ টি ইটভাটা রয়েছে। সব ইটভাটাতেই কম বেশি ক্ষতি হয়েছে, ক্ষতির পরিমান আনুমানিক ৫ থেকে ৭ কোটি টাকার মতো হবে।

পিডিএস/এস

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখান,বৃষ্টিতে ক্ষতি ইটভাটার
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close