মিলন রায়হান, জয়পুরহাট

  ৩০ নভেম্বর, ২০২৩

জয়পুরহাটে ডিবি পুলিশ

চোরাই ট্রান্সফরমারসহ ১৬ জনকে গ্রেপ্তার

ছবি: প্রতিদিনের সংবাদ

জয়পুরহাটে চোরাই ট্রান্সফরমারসহ চক্রের ১৬ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। পুলিশ ও ডিবির একটি দল জয়পুরহাট ছাড়াও বগুড়া, গাইবান্ধা, দিনাজপুরের বিভিন্ন এলাকা জড়িতদের শনাক্ত করে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে জয়পুরহাট পুলিশ সুপারের (এসপি) সভা কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসপি মোহাম্মদ নুরে আলম এ তথ্য জানান। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মিটার, ট্রান্সফরমার চুরি, ছিনতাই, চুরিসহ একাধিক মামলা আদালতে বিচারাধীন বলে জানা তিনি।

এসপি নুরে আলম বলেন, জেলার সদর, পাঁচবিবি, আক্কেলপুর, কালাই, ক্ষেতলাল থানা এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে বিভিন্ন গভীর নলকূপের (ডিপ টিউবয়েল) বৈদ্যুতিক মিটার ও ট্রান্সফর্মার চুরি হচ্ছিল। পরে নলকূপ মালিকের কাছে ট্রান্সফরমার ফেরত দেওয়ার কথা বলে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের (বিকাশ/নগদ) টাকা দাবি করত চোরচক্রের সদস্যরা। টাকা পেলে চোরাই মিটার ও ট্রান্সফর্মার কৌশলে নলকূপ এলাকার আশেপাশে রেখে আসত। এমন একাধিক অভিযোগে জেলার প্রায় প্রতিটি থানায় মামলা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ ও ডিবির একটি দল তথ্য প্রযুক্তি ও সোর্সের সহায়তায় অভিযানে নামে।


  • চোরাই ট্রান্সফরমার ফেরত দেওয়ার কথা বলে নলকূপ মালিকের কাছে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে টাকা দাবি করত চোরচক্রের সদস্যরা।
  • গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মিটার, ট্রান্সফরমার চুরি, ছিনতাই, চুরিসহ একাধিক মামলা আদালতে বিচারাধীন।

অভিযানে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন গাইবান্ধার ধাওয়াচিলা শাইলট্রি এলাকার আ. রশিদ (৪৪), নওগাঁ সদর উপজেলার নদীকুল চৌধুরীপাড়ার জালাল হোসেন, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার বেড়াখাই গ্রামের মাহফুজ (৪২), আটুল গ্রামের লাভলু, কুয়াতপুর গ্রামের মোসাদ্দেক মন্ডল, একই গ্রামের আহসান হাবিব, উচাই গ্রামের খানু ফকির, সরাইল গ্রামের সাইদুর, পেয়ারা গ্রামের রাব্বি হাসান।

এছাড়া আছে জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার মহেষপুর গ্রামের কাওসার রহমান, বেগুনগ্রামের সোহাগ মন্ডল, আকলাপাড়া গ্রামের মেসবাউল ইসলাম, হাজিপুর সরকারপাড়া গ্রামের ছানোয়ার হোসেন, সিকটা মাদ্রাসাপাড়ার খোরশেদ আলম ধলু। এছাড়া জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার রামপরা চৌধুরীপাড়ার তুহিন মন্ডল ও আক্কেলপুর উপজেলার পারইল গ্রামের রায়হান কাজী।

পুলিশ সুপার বলেন, কৃষকদের কথা চিন্তা করেই পুলিশ ট্রান্সফরমার চোরদের ধরার বিষয়ে অধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মামুন খান চিশতি, গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাহেদ আলম, উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হোসেন, মিজানুর রহমানসহ অন্যরা।

পিডিএস/আরডি

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জয়পুরহাট,গ্রেপ্তার,চোরাই ট্রান্সফরমার
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close