ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

  ০১ অক্টোবর, ২০২২

শ্রী শ্রী রশিক রায় জিউ মন্দিরে ফের ১৪৪ ধারা জারি 

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর এলাকায় শ্রী শ্রী রশিক রায় জিউ মন্দিরে সনাতন ও ইসকন অনুসারীদের মধ্যে দ্বন্দ্বের জেরে আবারও ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু তাহের মো. সামসুজ্জামান এ নির্দেশ দেন।

প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নের শ্রী শ্রী রশিক রায় জিউ মন্দিরের জমির দখল নিয়ে হিন্দুধর্মের সনাতন ও ইসকন অনুসারীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই বিরোধ চলে আসছিল।

২০০৯ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর রশিক রায় জিউ মন্দিরে দুর্গাপূজা নিয়ে সনাতন ও ইসকন অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় ইসকনভক্তদের হামলায় ফুলবাবু নামের একজন সনাতন অনুসারী নিহত হন। এরপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে উপজেলা প্রশাসন মন্দির সিলগালা করে কার্যক্রম পরিচালনার দায়িত্ব নেয়।

শ্রী শ্রী রশিক রায় জিউ মন্দিরে একই সঙ্গে বিবাদমান সনাতন ও ইসকন অনুসারীরা পূজার প্রস্তুতি নেয়। এতে উত্তেজনার আশঙ্কা থেকে জেলা প্রশাসনের নির্দেশে ১৪৪ ধারা জারির আদেশ দেওয়া হয়।

দুর্গাপূজার সময় এলে জেলা প্রশাসনের মিটিংয়ে বিষয়টি আলোচনাসাপেক্ষে সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হলেও দীর্ঘ ১২ বছরেও সমাধান হয়নি। মন্দির কমিটির সভাপতি ভবেশ চন্দ্র বলেন, মন্দির রক্ষায় হাইকোর্টে মামলা করা হয়েছে। সে মামলার রায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পক্ষে দিয়েছে আদালত। রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে মন্দিরে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা ধর্মীয় কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে। এজন্য স্থানীয় প্রশাসনকে সব ধরনের সহযোগিতা করার কথা বলা হয়েছে। তবে প্রশাসন কেন বার বার ১৪৪ ধারা জারি করছে, বিষয়টি বোধগম্য নয়।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মো. সামসুজ্জামান বলেন, ওই মন্দিরের জমি নিয়ে স্থানীয় সনাতন ও ইসকন অনুসারীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। ২০০৯ সালে এখানে হতাহতের ঘটনা ঘটে। এ বছর আবারও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি এড়াতে এবং আইনশৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কায় ৩০ সেপ্টেম্বর ভোর ৬টা থেকে ৬ অক্টোবর রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
১৪৪ ধারা জারি
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close