প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ১৬ এপ্রিল, ২০২৪

বিশ্বব্যাপী কমল জ্বালানি তেলের দাম

গত শনিবার রাতে ইসরায়েলে ইরানের হামলার পর বিশ্ববাজারে তেলের দাম বেড়ে যাওয়ার শঙ্কা ছিল সবার। কিন্তু বাস্তবে ঘটেছে বিপরীত ঘটনা। কমতে শুরু করেছে জ্বালানি তেলের দাম।

গতকাল সোমবার সকালে এশিয়ান ট্রেডে জ্বালানি তেলের মূল্য কমার প্রবণতাই দেখা গেছে। নেমে এসেছে প্রতি ব্যারেল ৯০ ডলারের নিচে। গতকাল পৃথক প্রতিবেদনে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি ও রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

গত ছয় মাসের মধ্যে গত সপ্তাহে তেলে দাম ছিল সর্বোচ্চ। গত সপ্তাহের শেষে প্রতি ব্যারেল তেলের দাম ৯২ দশমিক ১৮ ডলার পর্যন্ত হয়েছিল। তবে ইরানের হামলার পর থেকে কমতে থাকা তেলের দাম। সকালে আরো ২০ থেকে ৩০ সেন্ট কমেছে।

গতকাল এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অপরিশোধিত তেলের দাম ৮৯ সেন্ট কমে ব্যারেলপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৮৯.৫৬ ডলারে। এ ছাড়া ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট ৯৫ সেন্ট কমে ব্যারেলপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৮৪.৭১ ডলারে।

তেল উৎপাদনের ক্ষেত্রে ওপেকভূক্ত দেশগুলোর মধ্যে ইরানের অবস্থান চতুর্থ এবং বিশ্বের মধ্যে সপ্তম। বর্তমানে প্রতিদিন ৩০ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল উৎপাদন করে থাকে দেশটি। ইসরায়েলে হামলার পর থেকে পাল্টা হামলার শঙ্কায় রয়েছে ইরান। সে আঘাত ইরানের তেলক্ষেত্রের ওপরও হতে পারে। এসব বিবেচনায় তেল সরবরাহের ক্ষেত্রে ইরান এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি সতর্কতা অবলম্বন করবে।

বিশ্লেষকদের মতে, বিশ্ববাজারে তেলে দাম বাড়া-কমার ক্ষেত্রে হরমুজ প্রণালী একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বিশ্বের ২০ শতাংশ তেলবাহী জাহাজ এই সমুদ্রপথ দিয়েই চলাচল করে। ওমান ও ইরানের মধ্যেকার সংবেদনশীল এই সমুদ্রপথটি শান্তিপূর্ণ থাকলে কমে যায় তেলের দাম। তবে ইসরায়েল যদি ইরানে পাল্টা হামলা করে সেক্ষেত্রে এই প্রণালী বন্ধ করে দিতে পারে ইরান। যার সরাসরি প্রভাব পড়বে তেলের দামের ওপর।

"

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close