reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ০৯ জুন, ২০২৪

গাজায় ২১০ ফিলিস্তিনি নিহত, আহতদের চিকিৎসায় হিমশিম খাচ্ছেন হাসপাতালের কর্মীরা

ছবি : সংগৃহীত

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে ইসরেয়েল। এই হামলায় এখন পর্যন্ত ২১০ জন নিরীহ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৪০০ জন।

ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের হাতে বন্দি ইসরায়েলি নাগরিকদের উদ্ধারে শনিবার (৮ জুন) গাজা উপত্যকার নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে অভিযান চালায় দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। কয়েক ঘণ্টাব্যাপী এই অভিযানে ব্যাপক হতাহতের ঘটনা ঘটে।

আল-জাজিরার প্রতিবেদন মতে, নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে অভিযান চালিয়ে ৪ জিম্মিকে উদ্ধার করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এ সময় ইসরায়েলি বাহিনীর একজন কর্মকর্তাও নিহত হন। আহতদের আল আকসা হাসপাতালসহ কয়েকটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গাজার গভর্নমেন্ট মিডিয়া অফিস নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলের এই অভিযানকে ‘ম্যাসাকার’ বলে অভিহিত করেছে। হামাস বলেছে, গাজায় ইসরায়েলের যে কৌশলগত ব্যর্থতা, ৪ জিম্মি উদ্ধারে তা বদলাবে না।

অভিযানটি চালিয়েছে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী ও পুলিশের সদস্যরা। মার্কিন প্রশাসনের এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে অ্যাক্সিওস জানিয়েছে, ইসরায়েলে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা ইউনিট গাজায় চার ইসরায়েলি বন্দি উদ্ধারে সহায়তা করেছে।

ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী তথা আইডিএফ জানিয়েছে, জিম্মিদের উদ্ধারের সময় নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে জল, স্থল ও আকাশ-তিন দিক থেকেই হামলা চালানো হয়।

চিকিৎসকদের আন্তর্জাতিক সংস্থা ডক্টরস উইদাউট বর্ডারস-এর পেডিয়াট্রিক ইনটেনসিভ কেয়ার চিকিৎসক ডা. তানিয়া হাজ-হাসান বলেন, ‘ইসরায়েলের অভিযানের পর আল-আকসা হাসপাতাল সম্পূর্ণভাবে রক্তে ভেসে গেছে। এটাকে দেখতে এখন কসাইখানার মতো লাগছে।’

এদিকে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে ভয়াবহ হত্যাকাণ্ড চালানো এই অভিযানকে ‘সফল’ বলে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘এই অভিযানের কথা ইতিহাসে লিপিবদ্ধ থাকবে।’

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close