reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ১৭ মে, ২০২৪

কলকাতায় মৃত্যু পথযাত্রী মাকে রেখে ঢাকায় গান শোনালেন মোনালি

ভারতের জনপ্রিয় গায়িকা মোনালি ঠাকুর আগেই জানিয়েছিলেন তার মৃত্যু পথযাত্রী মায়ের লাইফ সাপোর্ট খুলে ফেলার সিদ্ধান্ত। কিন্তু যেদিন এই লাইফ সাপোর্ট খুলে ফেলা হবে আগে থেকেই সেদিন ঢাকায় গান গাওয়ার চুক্তি করেছিলেন। কমিটমেন্ট ছিল গান করবেন। শো তো থামানো যাবেনা, The show must go on!

তাই কলকাতায় মৃত্যু পথযাত্রী মাকে হাসপাতালে রেখেই ঢাকায় এসে গান শোনালেন মোনালি। তবে গানেই নৈবেদ্য জানালেন সদ্য প্রয়াত মা’কে।

বৃহস্পতিবার ( ১৬ মে) কলকাতা থেকে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে এক গানের অনুষ্ঠান অংশ নেন মোনালি। বিশেষ অতিথি হিসেবে গান শোনানোর কথা ছিল তার। আগেই চুক্তি সেরেছিলেন গায়িকা। তাই আর না করতে পারেননি।

অত্যন্ত সংকটজনক মাকে কলকাতায় রেখেই গান শুনিয়ে শ্রোতাদের মন ভরালেন। কাঁপা কণ্ঠে মাকে স্মরণ করে গাইলেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের কালজয়ী গান ‘তুমি রবে নীরবে, হৃদয়ে মম’।

সোশ্যাল মিডিয়ায় মুহূর্তে ভাইরাল হয়েছে মোনালির সে গান। অনেক ভক্তই মন্তব্যের ঘরে জানিয়েছেন, রত্নগর্ভা মাকে বিনম্র শ্রদ্ধা। একইসঙ্গে শিল্পীর দায়িত্বশীলতা ও পেশাদারিত্বকে কুর্নিশ জানিয়েছেন নেটিজেনরাও।

শোয়ে অংশ নেয়ার আগে বৃহস্পতিবার (১৬ মে) ইনস্টাগ্রামে মাকে হারানোর বেদনার কথা জানান মোনালি। ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে মায়ের সঙ্গে ছোটবেলার একটি ছবি পোস্ট করে মোনালি জানান, লাইফসাপোর্ট সরিয়ে ফেলার কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন গায়িকা।

মোনালির ভাষায়, ‘কীভাবে সামলাব এই পরিস্থিতি। কীভাবে এই শূন্যতাকে ভরিয়ে তুলব…এই ব্যথা কীভাবে দূর হবে। মনে হয় মা ক্লান্ত, কিংবা নয়। কিন্তু এটাই সময়, আর আমি এক কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছি। মায়ের লাইফ সাপোর্ট সরিয়ে দেব...’

মোনালি স্টোরিতে আরও লেখেন, ‘এই কঠিন পরিস্থিতিতে কীভাবে লড়তে হয়, কেন আমরা শিখি না। অসহায় লাগছে। কীভাবে শুরু করব, কী করব, কেন সাহায্যের মতো কিছুই নেই! মা তুমি শান্তিতে থেকো। আর আমাকে সাহায্য করো। তোমাকে ছাড়া আমার জীবনটা কীভাবে চলবে? কোথায় রয়ে গেলাম মা আমি?এবার কী করব…আমার মা, আমার শিকড়, আমার সব।’

মাকে হারানোর হৃদয় ভাঙার শূন্যতায় ভেঙে পড়েছেন মোনালি। তবু ভক্তদের হৃদয় ভাঙতে দেননি। সঠিক সময়ে ঢাকায় উপস্থিত হয়েছিলেন গান শোনানোর জন্য। বৃহস্পতিবার শো শেষ হতেই শুক্রবার সকালের ফ্লাইটে কলকাতা ফিরেন। এই মুহূর্তে লাইফসাপোর্টে থাকা মায়ের পাশেই রয়েছেন মোনালি ঠাকুর।

জানা গেছে, কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসারত আছেন মোনালির মা। দুটি কিডনিই অকেজো হওয়ায় চলছিল ডায়ালাইসিস। এ সময় রোগীর ক্রিয়েটিনিন সাড়ে সাত, ব্লাড সুগার পঞ্চাশ, পি এইচ ৭, অক্সিজেন লেভেল ৫১-এ নেমে আসায় দায়িত্বরত চিকিৎসক পরিবারের অনুমতি ছাড়াই ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

ফুসফুসে কার্বন ডাই-অক্সাইড জমার পাশাপাশি মাল্টি অর্গান ফেইলিওর হওয়ায় গত ১২ দিন ধরে ক্রিটিক্যাল কন্ডিশন চলছে। উচ্চ রক্তচাপের পাশাপাশি ১০২ ডিগ্রি জ্বরও রয়েছে। সর্বশেষ পাওয়া তথ্যানুযায়ী, এখনও লাইফ সাপোর্ট চলছে মোনালির মায়ের।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close