মোঃ আশরাফুল আলম সাজু, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম)

  ১৯ জুলাই, ২০২২

রাজারহাটের উন্নয়নযাত্রায় অগ্রণী নারী কর্মকর্তারা

প্রতিদিনের সংবাদ

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলাকে দিনে দিনে সামনের দিকে এগিয়ে নিচ্ছেন এক ঝাঁক চৌকস নারী কর্মকর্তা। তাদের মাধ্যমেই পরিচালিত হচ্ছে এই উপজেলার সমস্ত উন্নয়ন কর্মকাÐ। প্রসাশনের প্রাণ ভোমরা তারাই। পুরুষ কর্মকর্তাদের চেয়ে কোন অংশে যেন কম নন। সভা, সেমিনারসহ যে কোন কর্মসুচিতে নিজ দায়িত্ব ও সময় সম্পর্কে সচেতন তারা।

নারীর ক্ষমতায়নের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত এই রাজারহাট উপজেলা। এই নিয়ে উপজেলার সাধারন জনগণের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুই এখন উপজেলা প্রসাশন। সংশ্লিষ্ট কার্যালয়গুলোর কর্মকর্তরা জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরে তাসনিমের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ সবাই। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছাড়াও সহকারী কমিশনার (ভূমি), উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, মাধ্যমিক একাডেমিক সুপারভাইজারসহ অর্ধশতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারি প্রসাশনের বিভিন্ন দফতরে সুনামের সাথে কর্মরত আছেন। স্থানীয় প্রশাসন ও কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সর্বোচ্চ পদে থেকে জনগণের সেবাকেই তারা তাদের ব্রত হিসেবে গ্রহণ করেছেন।

কথা হয় সহকারী কমিশনার (ভূমি) আকলিমা বেগম, কৃষি কর্মকর্তা সম্পা আকতার, একাডেমিক সুপার ভাইজার আয়শা সিদ্দিকাসহ কয়েকজনের সাথে। তারা জানান, কর্মক্ষেত্রে অনেক সময় পুরুষ কর্মকর্তাদের চেয়ে বেশি কাজ করে সামর্থের প্রমান দিতে হয়। প্রতিটি কাজ নিখুঁতভাবে করার চেষ্টা করেন, নিজেদের উপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করাতেই সার্থকতা খুঁজে পান। সন্তান নিয়ে একটু সমস্যা হয়, অন্যান্য দেশের মতো প্রতিটি উপজেলায় ডে-কেয়ার সেন্টার থাকলে তারা কিছুটা নিশ্চিন্তে থাকতে পারতেন।

এক প্রশ্নের জবাবে কৃষি কর্মকর্তা সম্পা আকতার বলেন, নারী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে কেউ কেউ অতি উৎসাহী আচরন করেন। সবকিছু সামাল দিয়ে আমরা দায়িত্ব পালন করে থাকি। অপর এক প্রশ্নের জবাবে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আকলিমা বেগম জানান, এই উপজেলা আমার প্রথম কর্মস্থল, এখানে দায়িত্ব পালন কালে সব শ্রেণির মানুষের সহযোগিতা, সহনুভুতি পচ্ছি। কোন ধরনের চাপ ছাড়াই দায়িত্ব পালন করে চলছি।

রাজারহাট পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (অব:), উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য চাষী আব্দুস সালাম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নের জন্য যে সমস্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন দেশবাসী তার সুফল পেতে শুরু করেছে, আমাদের রাজারহাট উপজেলা তার বড় প্রমান।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ আবুনুর মোঃ আক্তারুজ্জামান বলেন, যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে- এটি প্রবাদ বাক্য হলেও আমাদের জন্য চরম বাস্তবতা। আমরা রাজনৈতিকভাবে সব সময় কর্মকর্তাদের সহায়তা করে উপজেলাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। তিনি উপজেলার শিক্ষা ব্যবস্থা বিশেষ করে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক ও মাদরাসা শিক্ষার প্রতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষন করেন ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরে তাসনিম বলেন, প্রত্যন্ত অঞ্চলে কিছু কিছু ক্ষেত্রে কিছু লোক নারীর ক্ষমতায়নকে মেনে নিতে চান না। নারী, পুরুষ পার্থক্য খোঁজার চেষ্টা করেন। আমি মনে করি, দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে নারী, পুরুষ কোন বিষয় নয়। মূল বিষয় হচ্ছে আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব কতটুকু পালন করলাম। এই উপজেলার প্রতিটি মানুষ সহজ সরল, সকলের সহায়তায় এই উপজেলার সার্বিক উন্নয়নে প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছি।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
উন্নয়নযাত্রায়,অগ্রণী,নারী কর্মকর্তারা
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close