reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ১৭ জুন, ২০২৪

চামড়ার দামে সন্তুষ্ট নন ব্যবসায়ীরা

কুরবানির পশুর চামড়ার দাম এবার কিছুটা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। রাজধানীর খিলগাঁও, মগবাজার ও বাসাবো এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। তবে এই দরে সন্তুষ্ট নন চামড়া ব্যবসায়ীরা।

৩ জুন কুরবানির পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দেয় সরকার। গতবারের চেয়ে এবার প্রতি বর্গফুটের দাম ৫ টাকা বাড়িয়ে নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়। সেই হিসাবে ঢাকায় প্রতি বর্গফুট লবণযুক্ত গরুর চামড়ার দাম ৫৫ থেকে ৬০ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা। এক্ষেত্রে ঢাকায় প্রতিটি গরুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ন্যূনতম ১ হাজার ২০০ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ১ হাজার টাকা।

রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদ-মাদরাসা থেকে সাভারের হেমায়েতপুর ও পোস্তাগোলার ট্যানারিগুলো কমপক্ষে ৭৫০ টাকা দরে চামড়া কিনছে। কোনো কোনো চামড়া বিক্রি হয়েছে ৯২০ টাকায়।

খিলগাঁও জামিয়া মাদানিয়া মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মুফতি তাসরিফুল ইসলাম জানান, বিভিন্নজনের কাছ থেকে দান হিসেবে পাওয়া ৪৫০টি চামড়া তারা সংগ্রহ করেছেন। সেগুলো গড়ে ৯১০ টাকা দরে বিক্রি করা হয়েছে। গত বছর তারা বিক্রি করেছেন গড়ে ৮৫০ টাকায়।

খিলগাঁও এলাকা থেকে চামড়া সংগ্রহ করছে আনাছ ট্যানার্স। পোস্তা ও হেমায়েতপুরে তাদের ট্যানারি। প্রতিষ্ঠানটির প্রতিনিধি মো. ইসরাফিল জানান, গত বছরের তুলনায় এবার চামড়ার দাম কিছুটা বেড়েছে।

এদিকে বাসাবোর বাসিন্দা রেদোয়ানুল হক বলছেন, দুই বছর ধরে চামড়ার দাম কিছুটা বাড়লেও এখনও তা দুই–তিন যুগ আগের দামের তুলনায় কম। ওই সময় প্রতিটি চামড়া ২ থেকে ৪ হাজার টাকায় বিক্রি হত। এখন সব কিছুর দাম কয়েক গুণ বেড়েছে। সেই হিসেবে দুই বছরে কিছুটা বাড়ার পরও চামড়ার দাম এখন ১ হাজার টাকার নিচে। এ কারণে এখন আর কেউ নিজেরা চামড়া বিক্রি করে না। বরং মসজিদ–মাদরাসায় দান করে দেয়। আগে ফড়িয়ারা বাসা থেকে বেশি দামে চামড়া কিনে নিয়ে যেত।

পিডিএস/এমএইউ

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ঈদুল আজহা
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close