আকিকুল ইসলাম, ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ)

  ২৫ জানুয়ারি, ২০২৩

ধোবাউড়ায় তুলা চাষ 

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

ভারতের মেঘালয় সীমান্তঘেষা নেতাই নদীর পাড়ে ধুধু বালুচরের বিশাল মাঠ। পাশেই রয়েছে ঘোঁষগাও বিজিবি ক্যাম্প। শিশুদের খেলাধুলা ছাড়া তেমন কোন কাজে আসেনা বিশাল এই বালুর মাঠ। পরিত্যক্ত প্রায় ৭ বিঘা জমিতে কার্পাস তুলা চাষ করে সফল হয়েছেন ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল হক।

ধোবাউড়া উপজেলায় প্রথমবারের মত তিনি কার্পাস তুলা চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছেন। বর্তমান বাজার দরে তুলার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তুলা চাষে সহায়তা করেছেন ফ্রেন্ডশীপ এগ্রিকালচার প্রজেক্ট এসোসিয়েশন নামে একটি বেসরকারী সংস্থা।এই সংস্থার উদ্যোগে বীজ সরবরাহ ও ট্যাকনিক্যাল সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে। এতে ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল হক খুব সহজে সফল হয়েছেন। ফ্রেন্ডশীপ এগ্রিকালচার প্রজেক্টের এটি ছিল পরিক্ষামূলক প্রজেক্ট। ৭ বিঘা জমিতে খরচ হয়েছে প্রায় দেড় লক্ষ টাকা। প্রথম বছরেই পরিত্যাক্ত জমিতে তুলা চাষ করে আয় করেছেন প্রায় ৪ থেকে ৫ লক্ষ টাকা।

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল হক এ ব্যাপারে বলেন, বালুচরে তুলা চাষ করে এভাবে সফল হবো ভাবিনী, যেহেতু সফল হয়েছি তাই তুলা চাষের পরিধি আরও বৃদ্ধি করবো এ জন্য প্রয়োজন সরকারী পৃষ্টপোষকতা। ফ্রেন্ডশিপ এগ্রিকালচার প্রজেক্ট এর এসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার ফজলুর রহমান বলেন, নেতাই নদীর পাড়ে পরিত্যক্ত জমি দেখে শামসুল হককে উদ্ভুদ্ধ করেছি,প্রথমধাপে সফলতা পাওয়ায় আমরা আরও মানুষকে তুলা চাষে উৎসাহ দেব।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ধোবাউড়া,তুলা চাষ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close