নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

  ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২

সিদ্ধিরগঞ্জে গ্যাস বিস্ফোরণে স্ত্রীর মৃত্যু, স্বামী-সন্তান দগ্ধ

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে একটি বাড়িতে গ্যাস বিস্ফোরণে স্বামী-স্ত্রী ও দুই সন্তানসহ একই পরিবারের চারজন দগ্ধ হয়েছেন। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) রাতে দগ্ধদের মধ্যে গৃহবধূ আফরোজা আক্তার (৩৮) ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

সোমবার ভোর সাড়ে ৫টায় সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইলের উত্তর ধনকুন্ডা এলাকার নাজমুল মিয়ার বাড়িতে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। দগ্ধরা হলেন- গৃহকর্তা মো. জসিম (৪৫), মেয়ে জয়া আক্তার (১৩) ও ছেলে জুনায়েদ (৭)। মঙ্গলবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান।

ঘটনার শিকার জসিমের স্বজন ও পুলিশ জানায়, সোমবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে গৃহবধূ আফরোজা আক্তার রান্নাঘরে গিয়ে গ্যাসের চুলা জ্বালানোর সময় ম্যাচের কাঠি জালাতেই রুমের ভেতরে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় ঘরের দরজা-জানালা ভেঙে যায়। এতে দগ্ধ হন গৃহকর্তা মো. জসিম, স্ত্রী আফরোজা আক্তার, মেয়ে জয়া আক্তার ও ছেলে জুনায়েদ। পরে স্থানীয়রা দগ্ধদের উদ্ধার করে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান জানান, প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি, রাতে ঘুমানোর আগে রান্নাঘরের গ্যাসের চুলার চাবি খোলা ছিল। তখন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ ছিল। পরবর্তী সময়ে গ্যাস আসার পর সারা রাত গ্যাস নির্গত হয়ে ঘরের ভেতর জমাট বেঁধে থাকে। ভোরে চুলা জ্বালানোর জন্য আগুন ধরালেই ঘরের ভেতর জমাট বাঁধা গ্যাসের বিস্ফোরণ হয়। এতে ঘরের দরজা-জানালা ভেঙে যায়। এ সময় স্বামী-স্ত্রী ও দুই সন্তান দগ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে সোমবার রাতে গৃহবধূ আফরোজা আক্তার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার শরীরে ৯৫ ভাগ পুড়ে গিয়েছিল।

মশিউর রহমান আরো জানান, দগ্ধদের মধ্যে স্বামী ও তাদের এক সন্তানের অবস্থাও গুরুতর। আরেক সন্তানের শরীর কিছুটা কম বার্ন হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নিহত গৃহবধূর মরদেহ অনুমতি সাপেক্ষে বিনা ময়নাতদেন্তই দাফনের উদ্দেশ্যে স্বজনরা নিয়ে গেছেন। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে। বছর খানেক আগে, ২০২১ সালের ৪ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ছয়তলা ভবনের পঞ্চম তলায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারীসহ চারজন দগ্ধ হয়েছিলেন। তার আগে ২০২১ সালের ১২ নভেম্বর ফতুল্লায় ফ্ল্যাট বাসায় জমে থাকা গ্যাস বিস্ফোরণে দুই নারী নিহত হয়েছিলেন। এ সময় নারী-শিশুসহ আরো অন্তত ১৫ জন আহত হন।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
নারায়ণগঞ্জ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close