আনোয়ার হোসেন, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী)

  ২৯ নভেম্বর, ২০২২

কিশোরগঞ্জ ধান কাটার ধুম, কৃষকের ব্যস্ততা 

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে বাহাগিলী ইউনিয়নের উত্তর দুকুটি গ্রামে খেত থেকে ধানের আটি বাড়িতে নেওয়া হচ্ছে। ছবি গতকাল তোলা - আনোয়ার হোসেন

প্রকৃতির দুয়ারে এখন সমৃদ্ধির অগ্রহায়ন। এ হেমন্তে শস্যভাণ্ডার খ্যাত নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে মাঠে মাঠে চলছে আমন ধান ঘরে তোলার উৎসব। এতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষক, ক্ষেত মজুর ও গৃহবধূরা। অনাবৃষ্টি, খরার পরও গত কয়েক বছরের তুলনায় ফলন ছাড়িয়েছে লক্ষ্যমাত্রা। এতে কৃষকের চোখে-মুখে ফুটে উঠেছে খুশির ঝিলিক। কৃষি অফিসের সার্বিক পরামর্শ ও সঠিক সময় সেচ পরিচর্যায় ফল মিলেছে কৃষকের। বাম্পার ফলন, বাজার দর ভাল পাওয়ায় কৃষক পরিবারে বইছে আনন্দের ঢেউ।

চলতি বছর ১৪ হাজার ৮৭০ হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, গ্রামীণ জনপদে চলছে পাকা আমন ধান কাটা। উৎসবের আবহে কৃষকের সঙ্গে ধান কাটায় যোগ দিয়েছেন পরিবারের ছেলে-বুড়ো সবাই। ধান কাটা মাড়াইয়ে দম ফেলার ফুরসত নেই তাদের। উৎসবমূখর পরিবেশে কেউ ধান কাটছেন, আঁটি বাঁধছেন, কাধে করে অথবা ট্রলি বা ভ্যানে করে ধান বাড়ি নিয়ে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে লক্ষ্যমাত্রার ৬০ শতাংশ জমির ধান ঘরে তুলেছেন কৃষক।

ধান ঘরে তোলার পর ওই জমিতে হালচাষ দিয়ে নাবিআলু ও অন্যান্য রবি ফসল চাষে চলছে বিশাল আয়োজন। বাহাগিলী ইউনিয়নের উত্তর দুকুটি মাস্টার পাড়া গ্রামের চাষি দোলোয়ার হোসেন দুলাল জানান, তিনি ২৫ বিঘা জমিতে রোপা আমন চাষ করেছেন। সঠিক পরিচর্যায় ভাল ফলন হয়েছে। বর্তমানে ধানের বাজার দর ভাল থাকায় সব কিছু মিলে লাভের আশা করা হচ্ছে। সদর ইউনিয়নের বাজেডুমুরিয়া জুম্মাপাড়া গ্রামের কৃষক আফছার আলী বলেন, আমি ১৮বিঘা জমিতে হাইব্রিড ধান চাষ করেছি। বর্ষার সময় আকাশের পানির অভাব ছিল। সেচ দিয়ে চারা রোপণ করা হয়েছিল। পরে পর্যাপ্ত আকাশের পানি পাওয়ায় ধান আবাদে তেমন কোন সমস্যা হয়নি। ফলনও ভাল হয়েছে। বিঘায় ২৮ থেকে ৩২ মন ফলনের আশা করা হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার লোকমান আলম বলেন, অনুকূল আবহাওয়া, বৃষ্টি, কৃষি প্রণোদনা ও কৃষি বিভাগের সার্বিক পরামর্শে আমন চাষে সুফল মিলেছে। যা বিগত বছরের চেয়ে ফলন ছাড়িয়েছে। স্থানীয় খাদ্য চাহিদা মিটিয়ে ধান রপ্তানি করে কৃষক লাভবান হবেন।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কিশোরগঞ্জ,ধান কাটা,কৃষক
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close