মেহেদী হাসান মামুন, তজুমদ্দিন (ভোলা)

  ২৮ নভেম্বর, ২০২২

তজুমদ্দিনে পারিবারিক পুষ্টি বাগানে স্বাবলম্বী কৃষক

পুষ্টি নির্ভর দেশ গড়ে তুলতে সারাদেশের মতো ভোলার তজুমদ্দিনে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে পারিবারিক পুষ্টি বাগান করে স্বাবলম্বী হয়েছেন উপজেলার অধিকাংশ কৃষক। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর অফিস পরিচালিত ২০২১-২০২২ অর্থবছরে উপজেলায় বিভিন্ন প্রান্তে ৭৩টি পারিবারিক পুষ্টি বাগান করা হয়।

এ প্রকল্পের আওতায় কৃষকরা উপকৃত হওয়ায় ও পরিবারের পুষ্টি চাহিদা পূরণ হচ্ছে। এছাড়া অতিরিক্ত সবজি বিক্রি করে কৃষক-কৃষাণীরা স্বাবলম্বী হওয়া বাড়ির আঙিনায় পতিত জমিতে বছরব্যাপী সবজি চাষ করে নিজেদের পরিবারের সবজির চাহিদা পূরণ ও বাজারে বিক্রি করে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়ার উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।

শম্ভুপুর ইউনিয়নের কৃষক মো. মহসিন, তার বাড়ির আঙিনায় দেড় শতক জায়গায় সবজি আবাদ করেছেন। বাগানে রয়েছে পুঁইশাক, ডাটা শাক, কলাগাছ, পেয়ারা গাছ, আম গাছসহ বিভিন্ন ফল।

চাঁদপুর ইউনিয়নের কৃষক মো. সাইফুল ইসলাম ও আব্দুল মন্নানের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে, বাড়ির আঙিনায় পতিত দেড় শতক জায়গায় সবজি আবাদ করেছেন। লাগিয়েছেন পেঁপে গাছ, পেয়ারা গাছ, আমড়া, কামরাঙ্গাসহ বিভিন্ন প্রজাতির সবজি। এছাড়া রয়েছে শাক-সবজির বাগান।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা অপূর্ব লাল সরকার বলেন, কৃষক প্রশিক্ষণ ও কৃষক-কৃষাণীদের আধুনিক প্রযুক্তিতে প্রশিক্ষণ, উন্নত জাতের সবজির বীজ, সার, উপকরণ ও নির্ধারিত সময়ে তদারকির ফলে পারিবারিক পুষ্টি বাগান করে তজুমদ্দিনের কৃষকদের পরিবারের পুষ্টি চাহিদা পূরণ হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় উপজেলায় ৭৩ জন কৃষক-কৃষাণীর বাড়িতে এই সবজি বাগান তৈরি করা হয়েছে। আগামীতেও এই প্রকল্পের কাজ অব্যাহত থাকবে।

পিডিএসও/হেলাল

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কৃষক,পারিবারিক পুষ্টি বাগান,তজুমদ্দিন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close