সালাহ্উদ্দিন শুভ, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার)

  ২৩ নভেম্বর, ২০২২

খাসি সেং কুটস্নেম উৎসব উদযাপিত

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

খাসিয়া আদিবাসীদের নিজস্ব বর্ষপুঞ্জি হিসেবে বছরের শেষ দিন ২৩ নভেম্বর। খাসি বর্ষপঞ্জির বিদায়ী বছরকে নানা আড়ম্বরে উদযাপন করা হয়। বর্ষবিদায়ের এই উৎসবকে বলা হয় ‘খাসি সেং কুটস্নেম’। দেশব্যাপি খাসিয়াদের ঐতিহ্যবাহী বর্ষ বিদায় মাগুরছড়া পুঞ্জির মাঠে ইয়োথ ক্লাবের উদ্যোগে বুধবার (২৩ নভেম্বর) উৎসবের আমেজে দিবসটি উদযাপিত হয়েছে।

ঐতিহ্যের বর্ণিল সাজে খাসিয়া তরুণ তরুণীরা উৎসবে অংশ নেয়। উৎসবে খাসিয়ারা নিজস্ব সংস্কৃতি তুলে ধরে। উৎসবে ঐহিত্যবাহী খাসি পোশাক পরে মেয়েদের নৃত্যগীত, তৈল যুক্ত একটি বাঁশে উঠে উপরে রাখা মুঠোফোন গ্রহণ, দুটি পুকুরে বড়শী দিয়ে মাছ শিকার, তীর ধনুক খেলা, গুলতি চালানো, নিজস্ব ভাষার গান গেয়ে অতিথিদের বরণ করেন তারা। একই সঙ্গে সিলেট বৃহত্তর আদিবাসী ফোরামের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জির মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে আদিবাসী সাধারণ সভা। দুপুৃর ১২টায় অনুষ্ঠান শুরু হলেও মূল পর্ব শুরু হয় বেলা ২টায়।

নারিকেল গাছের পাতার ছাউনী দিয়ে আলোচনা সভার মঞ্চ তৈরি করা হয়। মঞ্চে বৃহত্তর সিলেট আদিবাসী ফোরামের সভাপতি আনন্দ মোহন সিনহার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিছ বেগম, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত উদ্দীন, মাধবপুর ইউপি চেয়ারম্যার আশিদ আলী প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জি প্রধান জিডিসন প্রধান সুচিয়াং।

খাসিয়া সম্প্রদায়ের পাশাপাশি এই বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে জাতি ধর্ম বর্ণ দেশ নির্বিশেষে সকলেই অংশ নেন। বর্ষপুঞ্জি অনুযায়ী ১৫৮তম বর্ষকে বিদায় ও ১৫৯তম বর্ষকে বরণ করে নিলো খাসিয়া জনগোষ্ঠী। ব্রিটিশ শাসন আমল থেকে ভারতের মেঘালয় রাজ্যে ২৩ নভেম্বর খাসি বর্ষ বিদায় ‘খাসি সেং কুটস্যাম’ পালন করা হয়। পরদিন ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হয় খাসি বর্ষবরণ।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
খাসি সেং,কুটস্নেম উৎসব
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close