আব্দুর রহমান রাসেল, রংপুর :

  ২৩ নভেম্বর, ২০২২

সিটি করপোরেশন নির্বাচন রংপুরে মেয়র পদে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন ডালিয়া

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া। বুধবার (২৩ নভেম্বর) আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নিদের্শক্রমে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের রংপুর সিটি কপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন। তিনি হলেন অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া।

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে ২০ নভেম্বর থেকে মনোয়ন ফরম বিক্রি শুরু করে আওয়ামী লীগ। বুধবার ছিল মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমা দেওয়ার শেষ দিন।

মনোনয়ন পাওয়ার পর সন্তোষ প্রকাশ করে অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা রংপুরের উন্নয়নের কথা চিন্তা আমাকে দলীয় মনোনয়নে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন। যদি নির্বাচিত হতে পারি তাহলে আমার প্রথম কাজ হবে নগরবাসীর অধিকার নিশ্চিত করা। রংপুর নগরীকে যানজটমুক্ত করে গড়ে তোলা। পিছিয়ে পড়া রংপুর মহানগরীকে এগিয়ে নিতে কাজ করব। এজন্য সকলের সহযোগিতা দরকার।

অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া রসিক নির্বাচনে দলীয় মনোনায়ন পাওয়ায় নগর জুড়ে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে আনন্দ উল্লাস। স্থানীয়রা বলছেন, রংপুরের উন্নয়ন করতে হলে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে। নৌকার কোন বিকল্প নেই। দলীয় মনোনয়ন ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই শুরু হয়েছে পাড়া মহল্লায় আলোচনা।

এদিকে উল্টোচিত্রও আছে। দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার আশায় ছিলেন- এমন নেতারা মনোনয়ন না পাওয়ায় দেখা দিয়েছে কৌতুহল। আর তাদের অনুসারী ও সমর্থকদের মাঝে শুরু হয়েছে নানা জল্পনা কল্পনা। তবে মহানগর আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা বলছেন, দেশনেত্রী শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দিয়েছেন তার সাথেই কাজ করতে হবে। আমরা দলের সিদ্ধান্তের বাইরে যেতে পারবো না। আমরা নৌকা ভক্ত, নৌকাকে ভালোবাসি। নৌকা বিজয়ের লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাব। জানা গেছে, গত রবিবার রংপুর মহানগরীর বেতপট্টিতে দলীয় কার্যালয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় নৌকা প্রতীকের মনোনয়নের জন্য দলের মনোনয়ন বোর্ডে কয়েকজন প্রার্থীর নাম পাঠানো হয়েছিল। ফলে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন তারা। মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নিদের্শক্রমে দলীয় মনোনয়ন অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়ার নাম ঘোষণা হওয়ার পর তারা হতাশ হয়েছেন।

মনোনায়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা চৌধুরী খালেকুজ্জামান ও রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিউর রহমান সফি, সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মণ্ডল, রংপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম, কোতোয়ালি থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ইঞ্জিনিয়ার লতিফুর রহমান মিলন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আতাউর জামান বাবু ও রংপুর মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক এম. এ. মজিদ।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক তুষার কান্তি বলেন, আমি মনোনায়ন পাইনি তাতে কোন দুঃখ নেই। আমরা মনে করি রংপুরে মানুষ অক্ষবদ্ধ হবে। নৌকা মার্কার প্রার্থীকে নিয়ে ভোট করবে। জয়লাভ করবে। আমি নিজেও একজন প্রার্থী ছিলাম সিটি নির্বাচন করার জন্য। বিগত তিন বছর থেকে মাঠে কাজ করেছি। নির্বাচন করার লক্ষ্যে মাঠে ময়দানে ছিলাম। নৌকার গণজোয়ার তৈরি হয়েছে, তা ইতিমধ্যে নগরবাসী বুঝতে পারছে। রংপুরের মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। নৌকার বিজয় নিশ্চিত হবে- এটা বিশ্বাস করি।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৭ ডিসেম্বর রংপুর সিটির ভোট গ্রহণ হবে। মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর। ১ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র বাছাই এবং মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৮ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে পর দিন ৯ ডিসেম্বর। এ নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা করা হয়েছে ইসির যুগ্ম সচিব নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের (ইটিআই) মহাপরিচালক আবদুল বাতেনকে।

২০১২ সালের ২৮ জুন ৩৩টি ওয়ার্ড নিয়ে রংপুর সিটি করপোরেশন গঠিত হয়। এরপর প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ওই বছরের ২০ ডিসেম্বর। এতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ মেয়র নির্বাচিত হন। বর্তমানে এই সিটি করপোরেশনের জনসংখ্যা প্রায় ১০ লাখ। আর ভোটার আছেন চার লাখের বেশি। ২০১৭ সালের দ্বিতীয় নির্বাচনের সময় ভোটার ছিলেন ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
রসিক,আওয়ামী লীগ,লুৎফা ডালিয়া
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close