লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি

  ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২

মা-বাবার সামনেই ট্রেনে কাটা পড়ল বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া ছেলে    

ছেলের মরদেহের পাশে বাবার আহাজারি। ছবি : সংগৃহীত

নাটোরের লালপুর উপজেলায় ট্রেনে উঠতে গিয়ে নিচে কাটা পড়ে ইমতিয়াজ আলী (২১) নামের এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র প্রাণ হারিয়েছে।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে ৯টার দিকে উপজেলার আব্দুলপুর জংশন স্টেশনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জানা যায়, ইমতিয়াজ পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার রূপপুর এলাকার ইসাহাক আলীর ছেলে। তিনি রাজশাহী বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ষষ্ঠ সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন।

আব্দুলপুর জংশন স্টেশনের মাস্টার জিয়াউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্বজনদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, সকাল ৭টার দিকে কমিউটার ট্রেনে ঈশ্বরদী থেকে মা-বাবা ইসাহাক আলীকে সঙ্গে নিয়ে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছিলেন ইমতিয়াজ আলী। সকাল পৌনে ৯টার দিকে ট্রেনটি জংশন স্টেশনে পৌঁছায়।

স্টেশনমাস্টার আরও বলেন, নাশতার জন্য স্টেশন সংলগ্ন হোটেলে যান বাবা ইসাহাক আলী ও ছেলে ইমতিয়াজ। নাশতা শেষ করতেই ট্রেন ছেড়ে দেয়। দৌড়ে চলন্ত ট্রেনে উঠতে গিয়ে পা ফসকে চাকার নিচে পড়ে যান ইমতিয়াজ। বাবার চোখের সামনে ট্রেনে কাটা পড়ে মারা যান তিনি। রেলওয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

প্রত্যক্ষদর্শী আরিফুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনার সময় ইমতিয়াজের মা-বাবা ট্রেনের ভেতরে বসেছিলেন। ঘটনার আকস্মিকতায় তারা নিশ্চুপ হয়ে গেছেন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানা পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
মা-বাবার সামনে,ট্রেনে কাটা পড়লো,বিশ্ববিদ্যালয় ছেলের
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close