reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ১৮ আগস্ট, ২০২২

ভারতে সাজা ভোগ করে দেশে ফিরলেন ৮ তরুণী

ছবি : সংগৃহীত

ভালো কাজের প্রলোভনে দালালের মাধ্যমে অবৈধ পথে ভারতে পাচারের শিকার আট বাংলাদেশি তরুণীকে ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বেনাপোলে চেকপোস্টে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ।

ভারতে তিন বছর সাজাভোগ শেষে বুধবার (১৭ আগস্ট) সন্ধ্যায় বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করা হয়।

ফেরত আসা তরুণীরা হলেন ঢাকার বৃষ্টি আক্তার, যশোরের রেবেকা খাতুন, ভোলার নাসরিন মণ্ডল ও রিতু আক্তার, কুমিল্লার লিজা মণ্ডল ও সুলতানা বেগম, গোপালগজ্ঞের হেলেনা খাতুন এবং খুলনার রেবেকা আক্তার।

ফেরত আসা তরুণীরা বলেন, দালালদের মাধ্যমে বিভিন্ন সীমান্ত পথে ভালো কাজের আশায় ভারতে যান। এরপর বাসা বাড়িসহ বিভিন্ন কাজের সময় ভারতীয় পুলিশ আটক করে আদালতে পাঠায়। আদালত তিন বছরের সাজা দেন। সেখান থেকে ভারতের একটি মানবাধিকার সংস্থা ছাড়িয়ে নিয়ে হায়দারাবাদের প্রাজাওয়ালা শেল্টার হোমে রাখে। পরে দু’দেশের মধ্যে চিঠি চালাচালির পর বুধবার দেশে ফিরলাম।

তারা আরও বলেন, “ওই শেল্টারহোমে আমাদের বয়সী অনেক বাংলাদেশি মেয়েরা আছে। তারা দেশে আসার অপেক্ষায় প্রহর গুণছে।”

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ভারত সরকারের বিশেষ ট্রাভেল পারমিটে ফেরত আসা বাংলাদেশি তরুণীদের ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। সেখান থেকে জাস্টিস এন্ড কেয়ার ও মহিলা আইনজীবী সমিতি নামের দুটি এনজিও সংস্থা তাদের গ্রহণ করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করবে।

যশোর জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মুহিত হোসেন বলেন, ফেরত আসা আট তরুণীদের থানা থেকে গ্রহণ করে যশোর জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার ও মহিলা আইনজীবী সমিতির নিজস্ব শেল্টার হোমে রাখা হবে। পরে পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ভারত,অবৈধ প্রবেশ,বাংলাদেশি তরুণী,সাজাভোগ
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close