সীতাকুন্ড (চট্টগ্রাম) ও হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি

  ১১ আগস্ট, ২০২২

ট্রেনের ধাক্কায় সীতাকুন্ডে পাগল হাজীগঞ্জে যুবকের মৃত্যু

ছবি : সংগৃহীত

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় মো. নুরুল ইসলাম (৫৮) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) সকালে চাঁদপুর-লাকসাম রেল সড়কের হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন কংগাইশ গ্রামের শৈলখালী রেল ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নুরুল ইসলাম উপজেলার হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের পশ্চিম হাটিলা গ্রামের আবু হানিফের ছেলে। তিনি হাজীগঞ্জ ও শাহরাস্তি উপজেলার মানুষের কাছে নুরু পাগলা নামে পরিচিত ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায বৃহস্পতিবার সকালে নুরু পাগলা বাড়ি থেকে বের হয়ে তার গ্রামের পাশে চাঁদপুর-লাকসাম রেল সড়কের হাঁটতে বের হন। এ সময় চাঁদপুর থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। খবর পেয়ে হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে চাঁদপুর রেলওয়ে থানা পুলিশকে (জিআরপি) অবহিত করে।

এদিকে চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড প্রতিনিধি জানান, সীতাকুন্ডে এয়ারফোন লাগিয়ে গান শুনতে শুনতে রেললাইন ধরে হাঁটতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় সাইফুল ইসলাম (২০) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়। ট্রেনটি অন্তত ১৫ কিলোমিটার দূরে তাকে টেনে নিয়ে যায়। সাইফুল বাড়বকুন্ড ইউনিয়নের ভুলাইপাড়ার মৃত শারাফাতুল্লাহর ছেলে এবং স্থানীয় একটি কারখানার শ্রমিক। বুধবার (১০ আগস্ট) রাত ৯টায় উপজেলার সিরাজ ভূইয়া রাস্তার মাথা (রহমতনগর) এলাকা সংলগ্ন রেললাইনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার রাতে কারখানা ছুটির পর এয়ারফোন লাগিয়ে গান শুনতে শুনতে রেললাইন ধরে হাঁটছিলেন সাইফুল। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামমুখী চট্টলা এক্সপ্রেস ট্রেনটি তাকে সজোরে ধাক্কা দেয়। তাতেই ইঞ্জিনের হুকের সঙ্গে তার দেহ আটকে ঘটনাস্থল থেকে টেনে-হিঁচড়ে ১৫ কিলোমিটার দূরে কুমিরা রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত চলে যায় তার দেহ। সেখানে ট্রেন থামার পর মরদেহটি জিআরপি পুলিশ উদ্ধার করে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
সীতাকুন্ড,হাজীগঞ্জ,ট্রেনের ধাক্কা,মৃত্যু
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close