খুলনা ব্যুরো

  ২৩ জুন, ২০২২

খুলনায় স্কুলে ইয়াবার ব্যবসা করেন দপ্তরি, গ্রেপ্তার ২

ছবি : প্রতিদিনের সংবাদ

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বসেই চলছে ইয়াবার ব্যবসা। আর এ ব্যবসা করছিলেন খোদ স্কুলের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী মনিরুজ্জামান মনির শেখ নিজেই। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরেই নেশাদ্রব্যের এ ব্যবসা চললেও তিনি ছিলেন ধরা-ছোঁয়ার বাইরে। তবে, এবার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী মনিরুজ্জামান মনির শেখ (৪২) ও তার সহযোগী তুহিন গাজীকে (৩০)। বুধবার রাতে ৫০ পিস ইয়াবাসহ পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে। দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আহসান উল্লাহ চৌধূরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তারকৃত মনিরুজ্জামান সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। একই সঙ্গে তিনি একই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সেনহাটি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরহাদ হোসেনের ভাই। তিনি সেনহাটি গ্রামের মৃত শেখ ইসমাইল হোসেনের ছেলে। তার সহযোগী তুহিন গাজী চন্দনীমহল এলাকার মৃত ইজু গাজীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্র ও পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার রাত ১০ টার দিকে দিঘলিয়া থানার এসআই আজিজ মাহমুদের নেতৃত্বে একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিযান চালিয়ে ৫০ পিস ইয়াবাসহ মনিরুজ্জামান ও তুহিন গাজীকে গ্রেপ্তার করে। তাদের বিরুদ্ধে দিঘলিয়া থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আহসান উল্লাহ চৌধুরী জানান এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

দিঘলিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শাহনাজ বেগম জানিয়েছেন, এর আগে সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়ে তাকে শোকজ করা হয়। কিন্তু তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেন। এখন পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে। মামলা দায়ের হয়েছে। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা হবে।

প্রধান শিক্ষককে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভা করে মনিরুজ্জামানকে সাময়িক বরখাস্ত করতে বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সেনহাটি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরহাদ হোসেন গ্রেপ্তারকৃত মনিরুজ্জামান মনির শেখকে নিজের ভাই বলে স্বীকার করে বলেন, এর আগে তাকে এ বিষয়ে সতর্ক করা হয়। কিন্তু তিনি অস্বীকার করেন। তবে এবার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হওয়ায় তাকে বৃহস্পতিবার স্কুল কমিটির সভায় সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বিষয়টি আইনগত ভাবেই সমাধান হবে। তবে নিজের ভাই বলে তাকে কোন ধরনের প্রশ্রয় দেননা বলে দাবি করেন তিনি।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
দপ্তরি,ইয়াবার ব্যবসা,খুলনা,স্কুল
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close